প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাশ্মীরের নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ অজিত ডোভালের, ভাগ করে খেলেন খাবার

রাশিদ রিয়াজ : রাজ্যের গোয়েন্দা ব্যুরো ইউনিটের কার্যালয় থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখা জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল “নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে সমন্বয়” খতিয়ে দেখেন। কাশ্মীরের নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ অজিত ডোভালের, ভাগ করে খেলেন খাবার। জম্মু ও কাশ্মীরে মোতায়েন নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের সঙ্গে কথা বললেন অজিত ডোভাল।

জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদাকে বাতিল করে একে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের পরেই জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল সেখানকার সুরক্ষা পরিস্থিতি তদারকির জন্য বিমানে করে শ্রীনগরে উড়ে যান। তখন থেকেই তিনি জম্মু ও কাশ্মীরে রয়েছেন এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে পরিস্থিতি সংক্রান্ত খবরাখবর পাঠাচ্ছেন। জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই উপত্যকা সাক্ষী থাকল আপাতভাবে শান্তিতে ঈদ উদযাপনের। ঈদের উৎসবের মেজাজের মধ্যেই জম্মু ও কাশ্মীরে মোতায়েন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান ও রাজ্য পুলিশের আধিকারিকদের সঙ্গে খাবার ভাগ করে খেলেন অজিত ডোভাল। রাজ্যের গোয়েন্দা ব্যুরো ইউনিটের কার্যালয় থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখা জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল খাওয়া দাওয়া করার পাশাপাশি “নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে সমন্বয়” রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখেন।

এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, জম্মু ও কাশ্মীরে আইন শৃঙ্খলা রক্ষণাবেক্ষণ নিশ্চিত করতে জওয়ানরা যেভাবে দীর্ঘদিন ধরে কঠোর দায়িত্ব করছেন তার প্রশংসা করেছেন অজিত ডোভাল। “জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা আমাদের ছেলেদের কঠোর পরিশ্রম ও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ মানসিকতার প্রশংসা করেছেন,” এনডিটিভিকে বলেন ওই পুলিশ কর্তা।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের আধিকারিকরা মনে করছেন জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে কড়া সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরেই সেভাবে প্রধানমন্ত্রী মোদি অজিত ডোভাল-কে উপত্যকার নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্যে সেখানে পাঠিয়ে দিয়ে দুর্দান্ত পদক্ষেপ নিয়েছেন। সূত্র মারফৎ খবর দোভাল ১৫ই অগাস্ট পর্যন্ত কাশ্মীর উপত্যকায় থাকবেন । “স্বাধীনতা দিবসের আগে পাকিস্তান যে কোনও ধরণের হামলা চালানোর ব্যাপারে সর্বক্ষণ মদত দেওয়ার চেষ্টা করছে,” এক গোয়েন্দাকর্তা এনডিটিভিকে বলেন এ কথা।

“যখন বিলটি (বিশেষ মর্যাদা অবলুপ্ত করার জন্য) সংসদে আনা হয়েছিল, তখন সরকারের সামনে তাৎক্ষণিকভাবে তিনটি সুরক্ষার চ্যালেঞ্জ ছিল – শান্তিপূর্ণভাবে শুক্রবারের নমাজ পাঠ পরিচালনা, তারপরে ঈদ এবং স্বাধীনতা দিবস পালন” আরও এক প্রবীণ পুলিশকর্তা বলেন এ কথা। “সুরক্ষা বাহিনীর নিরন্তর প্রচেষ্টায় দুটি বিষয় শান্তিপূর্ণভাবে পরিচালিত হলেও এখন সবার নজর স্বাধীনতা দিবসের প্রস্তুতির দিকে”, বলেন তিনি।

অজিত ডোভাল গত কয়েকদিন সোপিয়ান, পুলওয়ামা এবং অনন্তনাগ সহ সমস্ত সংবেদনশীল এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। “এটি নিয়মানুযায়ী পর্যবেক্ষণ এবং এর সাহায্যে এটাও নিশ্চিত করা যে সমস্ত সংস্থা একে অপরের সঙ্গে মিলিতভাবে কাজ করছে,” বলেন এক নিরাপত্তা আধিকারিক।

সূত্র জানায়, দক্ষিণ কাশ্মীরের অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদী দলগুলি সবচেয়ে বেশি সক্রিয় রয়েছে। জইশ-ই-মহম্মদ, লস্কর-ই-তৈবা এবং হিজবুল মুজাহিদিনের সন্ত্রাসবাদীরা তলে তলে সঙ্গবদ্ধ হওয়ার চেষ্টা করছে বলে খবর মিলেছে।

পুলিশ কর্মকর্তাদের মতে, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল স্বীকার করেছেন যে আগামী দিনে নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হতে চলেছে স্বদেশে সন্ত্রাসবাদ রোধ। এ বিষয়ে তিনি নিরাপত্তা বাহিনীকে সর্বাধিক সংযম প্রয়োগ করতে বলেছেন।

একজন আধিকারিক বলেন, “স্বার্থান্বেষীরা নিরাপত্তা বাহিনীর পদক্ষেপকে উস্কে দেওয়ার জন্য সমস্ত উপায় এবং অবলম্বন ব্যবহার করবে এবং সোশ্যাল সাইটগুলি ব্যবহার করে ভুয়ো খবর এবং গুজব ছড়িয়ে অশান্তিতে মদত দেওয়ার চেষ্টা করবে।”

ইতিমধ্যেই শান্ত পরিস্থিতির মধ্যেই জম্মু ও কাশ্মীরে ঈদ পালনে (Kashmir Eid) সক্ষম হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। আঁটোসাঁটো নিরাপত্তায় এখনও পর্যন্ত বড় কোনও অশান্তি ছড়ায়নি সেখানে। এমনকি শান্তি রক্ষায় এখনও পর্যন্ত জম্মু ও কাশ্মীরে একটি গুলিও চালানো হয়নি বলে জানিয়েছে প্রশাসন, যা অত্যন্ত সদর্থক। এনডিটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত