প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোরবানির ঈদে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাংস খেতে হবে পরিমিত

শিমুল মাহমুদ : কোরবানির ঈদে মাংস তো খাওয়া হয় জম্পেশ। তবে স্বাস্থ্যের কথা ভাবতে হবে সবার আগে। ঈদের আনন্দে যেন অসুস্থতা বাধ সাধতে না পারে, সেজন্য সবাইকে হতে হবে স্বাস্থ্য সচেতন। খেতে হবে পরিমিত, সেই পরামর্শই দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। বিশেষ করে যাদের উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ অথবা ডায়বেটিস আছে বাড়তি সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে তাদের।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. ফজলুল হক বলেন, হাই প্রেসার, ডায়াবেটিস, হার্টের রোগীদের গরুর মাংস না খাওয়াই ভালো। খেলেও এক টুকরো কিংবা দুই টুকরো মাংস খাওয়া খেতে পারেন।

রেটমিটের সাথে এলার্জি জনিত রোগের আশঙ্কা থাকে তাই সে ক্ষেত্রে হতে হবে সর্তক। নর্দান হাসপাতালের চর্ম বিভাগের চিকিৎসক ডা. আসমা তাসনিম খান বলেন, রেটমিটে যাদের প্রবলেম আছে দেখা যাবে, শরীরের বিভিন্ন অংশে চাকা চাকা হয়ে যাচ্ছে, লাল লাল হয়ে যাচ্ছে, খুব চুলকাচ্ছে। এমনকি শ্বাসকষ্ট, বমি, মাথাব্যথা, পেটব্যথা, অস্থিসন্ধি ব্যথা, পাতলা পায়খানা ইত্যাদি হয়ে থাকে।গরু ও খাসির মাংসের অতিরিক্ত চর্বি অবশ্যই ফেলে রান্নার পরামর্শ চিকিৎসকদের।

ডা. আসমা তাসনিম বলেন, ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগ ছড়াতে পারে কোরবানি পরবর্তী আর্বজনা। তাই কোরবানির পর পশু জবাই করার স্থান পরিস্কার করতে হবে জীবাণু নাশক ওষধ দিয়ে। সূত্র : যমুনা টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত