প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অধিভুক্তি বাতিলের আন্দোলনে অংশ নিতে যাওয়া স্বতন্ত্রজোটের শিক্ষার্থীদের পেটালো ছাত্রলীগ

মুহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের আন্দোলনে যাওয়ার সময় ঢাবির দুই শিক্ষার্থীকে মারধর করে ছাত্রলীগের কর্মীরা। মারধরের শিকার হয়েছেন ঢাবির দ্বিতীয় বর্ষের আরবী বিভাগের শিক্ষার্থী আবু রায়হান এবং প্রথম বর্ষের ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী আহনাফ তাহমিদ।

বুধবার সকাল সাড়ে আটটায় পুষ্টি বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের সামনে এই ঘটনা ঘটে। ছাত্রলীগের ১৩-১৪ জন মিলে এই দুইজনকে মারধর করে। হামলায় নেতৃত্ব দেয়া একজনকে সনাক্ত করা গেছে। ছাত্রলীগের হামলাকারী শিক্ষার্থী নাবিল হায়দার পলিটিক্যাল সায়েন্স বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের এবং সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। সে ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেনের অনুসারী। হামলার শিকার আহনাফ তাহমিদের চোখে আঘাত লেগে চোখের কর্নিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পরে সেখান থেকে তাকে বাসায় পাঠানো হয়।

হামলার শিকার আবু রায়হান বলেন,‘টিএসসি থেকে আর ৪-৫ জন আপু আন্দোলনে যাওয়ার সময় পুষ্টি বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের সামনে আমাদেরকে ছাত্রলীগের ১৩-১৪ জন মিলে আটকায় এবং আমাকে মারধর করে। সেসময় তাহমিদ আমাদের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিবাদ করলে তাকে তারা চোখে ঘুষি, খামচি মেরে জখম করে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং অপরাধীদের বিচারের দাবি জানাই।’ আহত দুইজন অরণী সেমন্তী খানের নেতৃত্বাধীন স্বতন্ত্র জোটের সাথে সম্পৃক্ত। এ বিষয়ে অরণি বলেন, “আজ সকালে যখন আমাদের স্বতন্ত্র জোটের কয়েকজন মিলে আন্দোলনে যাচ্ছিল, তখন ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।”

এ প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসু এজিএস সাদ্দাম হোসেনের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি ফোন রিসিভ করে এগুলো শুনার পর ফোন কেটে দেন। ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে ফোন দিলে তার মোবাইল নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়। এ বিষয়ে কথা বললে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন,‘আমরা যতটুকু জেনেছি, এই শিক্ষার্থী যারা ক্লাস করতে চায় তাদের বাঁধা দিতে ছিল। যদি সে আন্দোলন না করে তবে তো আর সে ইলেক্ট্রিক্যাল এ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক বিভাগের শিক্ষার্থী হয়েও এতো সকালে পুষ্টি বিজ্ঞান অনুষদের সামনে আসার কথা না। আর এতো সকালে সুইমিং পুলে যাওয়ার কথা না। তবে আমরা ছেলেটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা করিয়ে বাসায় পাঠানোর ব্যবস্থা করেছি।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত