প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আবিষ্কৃত হলো রঙিন এক্সরে

আসিফুজ্জামান পৃথিল : হাড়ভাঙা এবং অন্যান্য রোগনির্ণয় এখন থেকে হবে আরো সহজ। রোগনির্ণয়ের জন্য এবার রঙিন এক্সরে আবিষ্কার করলে ইউরোপীয় গবেষণা ও উদ্ভাবনী সংস্থা সার্ন এর বিজ্ঞানীরা। শুধু রঙিন নয়, নতুন এই এক্সরে হবে ত্রিমাত্রিকও। এই আবিষ্কারের জন্য সার্নের বিজ্ঞানীরা ২০ বছর গবেষণা করেছেন। সার্ন, সায়েন্স টুডে, আনন্দবাজার।

এই আবিষ্কারের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে কণা অনুসন্ধান প্রযুক্তি বা পার্টিকেল ট্র্যাকিং টেকনোলজি। গবেষকদের মতে, এই আবিষ্কারের ফলে শরীরের অভ্যন্তরীণ অংশের ছবি আরও স্পষ্ট ও নির্ভুল হবে। কারণ, এই পদ্ধতিতে শরীরের কোষ, কলা, অঙ্গপ্রত্যঙ্গের ত্রিমাত্রিক ছবি পাওয়া সম্ভব হবে। এক্স-রে’র বর্তমান পদ্ধতিতে শুধু দ্বিমাত্রিক ছবি পাওয়া সম্ভব হয়। সার্ন-এর গবেষকদলের প্রধান ফিল বাটলারের দাবি, আর কোনো যন্ত্রই এতো নির্ভুল ছবি তুলবে না। হিগস-বোসন কণাকে হাতের মুঠোয় বন্দী করা সার্নের বিখ্যাত লার্জ হ্যার্ডন কোলাইডারের মাধ্যমেই এই আবিষ্কার করেছেন তারা।

বিশেষ রঙিন এক্স-রে দেহের অস্থি, তরুণাস্থি ও পেশীগুলিকে আরও স্পষ্ট করে তুলে আঘাতের সঠিক উৎপাদনস্থল ও তার অবস্থা নির্ণয়ে সক্ষম হবে। শুধু তাই নয়, এর মাধ্যমে টিউমারের উপস্থিতিও শনাক্ত করা যাবে। এই যন্ত্রের ব্যবহারে চিকিৎসাবিজ্ঞান অনেকটাই এগিয়ে যাবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন গবেষকরা। সার্নের এই প্রযুক্তিকে বাণিজ্যিক ভাবে কাজে লাগাচ্ছে নিউজিল্যান্ডের এক বহুজাতিক কোম্পানি। তাদের এই কাজে সাহায্য করছে ইউনিভার্সিটি অব ওটাগো এবং ইউনিভার্সিটি অব ক্যান্টারবেরি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত