প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিজ্ঞান জগতে বর্তমানে সাড়া জাগানো পাঁচ নারী

দেবদুলাল মুন্না : বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে নারীরা বর্তমানে বড়ো ভূমিকা রাখছেন। তাদের মধ্যে সাড়া জাগানো পাঁচ নারী বিজ্ঞানী হচ্ছেন, ডেম জোকোলিন বেল বুর্নেল, নিকোলা বিয়ার, গ্লাডিস জেটিচ, মেগান হুইলার ও জোহানা পোর্সতি। এই পাঁচ নারীকে নিয়ে এ সপ্তাহে ‘নাসা সায়েন্স জার্নাল ইনক’ কাভার স্টোরি করেছে।

অধ্যাপক ডেম জোকোলিন বেল বুর্নেল ১৯৫০ সালের দিকে আয়ারল্যান্ডের একটি স্কুলে পড়তেন। অন্য মেয়েদের মতো তাকেও বিজ্ঞান বিভাগে পড়তে দেয়া হয়নি। তার মতে, ‘ছেলেদের পরীক্ষাগারে পাঠানো হলেও মেয়েদের পাঠানো হতো গৃহস্থালি কাজ শেখার কক্ষে।’সেই জোকোলিন বর্তমানে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের নভোঃবস্তুবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক।

ড. নিকোলা বিয়ারের বিজ্ঞানের প্রতি ঝোঁক শৈশব থেকেই। বায়োকেমিস্ট্রিতে ডিগ্রি অর্জনের পর অক্সফোর্ড থেকে পিএইচডি করেন তিনি। এমআইটি ও হার্ভার্ডেও ছিল তার বিচরণ। নোভো নরডিস্ক রিসার্চ সেন্টারের জীববিদ্যা বিভাগের প্রধান এখন তিনি।
কেনিয়ার বাসিন্দা গ্লাডিস জেটিচ। দেশটির যন্ত্রপ্রকৌশল বিভাগে পড়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে তিনি একজন। তিনি বলেন, ‘যন্ত্রপ্রকৌশল বিভাগে পড়তে যাওয়ার প্রথম বছরে আমার ক্লাসের অধিকাংশ ছেলেই মনে করতো, আমি কিছু পারবো না। কিন্তু মজার বিষয়, ওই ক্লাসে একমাত্র জেটিচই ফার্স্ট ক্লাস পেয়েছিলেন।’ ২০১৯ সালে তিনি শ্মিট সায়েন্স ফেলোশিপ জেতেন মহাকাশ প্রযুক্তি বিষয়ক গবেষণার জন্য।

শ্মিট সায়েন্স ফেলো প্রকল্পের নির্বাহী প্রধান হলেন ড. মেগান হুইলার।তিনি বর্তমানে বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মানবদেহের জিন বিষয়ক গবেষণায় রত আছেন। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, আমাদের অনেক বিজ্ঞানী আছেন, যাদের সত্যিকারের অভিজ্ঞতা ও চিন্তার গভীরতা রয়েছে। তারা চাইলে চিন্তার পরিধিও অতিক্রম করতে পারেন।’

দুনিয়া কাঁপানো পঞ্চম নারী জোহানা পোর্সতি। ফিনল্যান্ডের এই নারী হেলসিঙ্কি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেন, কোপেনহেগেনে এমবিএ করেছেন। বর্তমানে তিনি নোভো নরডিস্ক রিসার্চ সেন্টারের বিজ্ঞানী হিসেবে কাজ করছেন।
সম্পাদনা: অশোকেশ রায়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত