প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনকারীদের সাথে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের বাক বিতণ্ডা

ইলিয়াস হোসেন : ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষ থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ৫ম দিনের মতো আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার দ্বিতীয় দিনের মতো গ্রন্থাগার ব্যতিত প্রতিটি এ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনের সামনে তালা ঝুলিয়ে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। এতে বিশ্ববদ্যালয়ের ক্লাস পরীক্ষা সব বন্ধ রয়েছে। আজ ২২ জুলাই শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের এক পর্যায়ে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতা-কর্মীরা এসে বাঁধা দিলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

সোমবার সকাল ১০ টার দিকে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আহ্বায়ক সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দিন ও ঢাবি শাখা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল তাদের কয়েকজন নেতা-কর্মীসহ এসে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বাঁধা দেন। এতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা উত্তেজিত হয়ে পড়েন।
আন্দোলকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমরা আন্দোলন করার এক পর্যায়ে তারা এসে সামাজিক বিজ্ঞান ভবনে প্রবেশ করতে চান। আমরা তালা খুলতে না দিলে আমিনুল ইসলাম বুলবুল আমাদের ‘ছেলে-পেলে আনবো নাকি’ বলে হুমকি দেন।’

সেসময় সরেজমিনে দেখা যায়, আমিনুল ইসলাম বুলবুল আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের হুমকি দিলে তারা উত্তেজিত হয়ে পাল্টা বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। এসময় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা- ‘নির্লজ্জ প্রশাসন, ধিক্কার-ধিক্কার’, ‘অ্যাকশন-অ্যাকশন, ডাইরেক্ট অ্যাকশন’, ‘ভুয়া-ভুয়া’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন।

অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দিন সাংবাদিকদেরকে বলেন, ‘বছরে দু’বার অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভা অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ২৮ তারিখ অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভা রয়েছে। তার আগেই ছাত্রদের রেজাল্ট তৈরি করতে হবে এবং ওই সভায় ছাত্রদের ডিগ্রী পাস হবে। যদি আজ পরীক্ষা না নেওয়া হয় এবং তবে ২৮ তারিখের আগে ফল প্রকাশ করা সম্ভব হবে না। পাশাপাশি অ্যাকাডেমিক সভাতেও ওই ফল অনুমোদন করানো সম্ভব হবে না। স্বভাবতই পরবর্তী অ্যাকাডেমিক সভার জন্যে অপেক্ষা করতে হবে এবং ছাত্ররা এক বছর পিছিয়ে যাবে।

সম্পাদনা : রাশিদুল/মহসীন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত