প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কালকিনিতে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

এইচ এম মিলন (কালকিনি) মাদারীপুর : মাদারীপুরের কালকিনিতে মো: রকিবুজ্জামান নামের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ এনে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন এক ভুক্তভোগীর পরিবার। মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় প্রেসক্লাবে এ সাংবাদিক সম্মেলন করা হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় দ্বন্দ্বের জের ধরে সম্প্রতি উপজেলার আলীনগর এলাকায় মো. জিয়াবুল মোল্লাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এর জেরধরে গত ১৭-০৬-১৯ইং তারিখ একই এলাকার গনি হাওলাদারের নিরীহ কৃষকপুত্র মো. জয়নাল হাওলাদারকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার মাথার উপর কুপিয়ে গুরুতর আহত করে ওই এলাকার সামচুল হক হাওলাদার, বজলু হাওলাদার ও রুহুল আমিন মুন্সিসহ বেশ কয়েকজন যুবক। পরে আহত অবস্থায় মো. জয়নাল হাওলাদারকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথমে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে বরিশাল সেবাচিম হাসাপাতালে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে তোলা হয়।

এ ঘটনায় ৩৯জনকে আসামি করে কালকিনি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন আহত জয়নালের পরিবার। কিন্তু কালকিনি হাসপাতালের সহকারী সার্জন চিকিৎসক মো. রকিবুজ্জামান অনিয়ম ও দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে আসামি পক্ষের সাথে যোগসাজস করে সঠিক সনদ না দিয়ে একটি সাধারণ সনদ দেন। এতে করে ওই মামলার আসামিরা সহজেই পার পেয়ে যায়। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ও চিকিৎসক রকিবুজ্জামানের বিচার দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন করা হয়।

ভুক্তভোগী মো. জয়নাল হাওলাদার সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করে বলেন, আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার মাথার উপর কুপিয়ে আহত করা হয়। কিন্তু ডাক্তার রকিবুজ্জামান দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে হাসপাতাল থেকে সঠিক সনদ না দিয়ে মামলার আসামি পক্ষ থেকে টাকা নিয়ে মিথ্যা একটি সনদ দাখিল করেন। এতে করে আমি চরম ক্ষতির মুখে পড়েছি।

অভিযুক্ত চিকিৎসক মো. রকিবুজ্জামান বলেন, আমি যেটা সঠিক পেয়েছি সেটাই দিয়েছি।

এ ব্যাপারে কালকিনি হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার মো. রেজাউল করিম বলেন, আমরা তাৎক্ষনিকভাবে প্রথমে একটি সনদ দিয়েছিলাম। এখন বরিশাল থেকে রিপোর্ট দিলে সে অনুযায়ী আমরা চূড়ান্ত সনদ দেব। সম্পাদনা : মিঠুন রাকসাম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত