প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

একদিন সব স্বৈরাচার বিদায় নেবে, সেদিনই হবে আসল স্বৈরাচার পতন দিবস

সুপ্রীতি ধর : ‘মাটি আর মানুষের ভিড় থেকে/তুলে নিয়ে জীবনের স্বাদ /দুহাতে দিতে চাই ছড়িয়ে’। এটা এরশাদের কবিতা, মুখস্থ করেছিলাম এসএসসিতে। তখন এরশাদময় জীবনের শুরু আমাদের, পাল্টে যাওয়া জীবনও বটে!একজন সাবেক স্বৈরাচার ১৪ জুলাই বিদায় নিলো, আশা করি একদিন সব স্বৈরাচার বিদায় নেবে, সেদিনই হবে আসল স্বৈরাচার পতন দিবস, আজ নয়। ভেবে দেখলাম, অনেকদিক দিয়েই এরশাদের কাছে আমরা ঋণী, বিশেষ করে আমরা যারা তারুণ্যে তাকে পেয়েছিলাম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে, জীবন অনেককিছু শিখিয়েছিলো আমাদের, আন্দোলনে, প্রেমে, কবিতায়। ‘কবিতা এখনই লিখে ফেলা যায়’, হমম, অনেকেই তখন কবিতা লিখেছিলাম জীবন দিয়ে।

ঋণী আরও এই কারণে যে তখন বুট, কামানের সামনেও অবিচল ছিলো আমাদের তারুণ্য। গুম, অপহরণের মতো গুপ্ত ভয় ছিলো না। ৫৭ ধারা, বিশেষ দলকে অবমাননা, ধর্ম অবমাননা এসব ছিলো না। তারুণ্যকে তখন কেনা যেতো না আজকের মতোন। যারা বলছে, এরশাদই এসবের গোড়াপত্তনকারী, একমত তাদের সাথে। কিন্তু সংশোধনের জন্যও যথেষ্ট সময় দেয়া হয়েছিলো, তাতো হয়ইনি, উপরন্তু একই পথে হেঁটেছে আমার দেশ, বরং খারাপতরো হয়েছে দিনে দিনে। তাই কোন শোক বা রিলিফ পাওয়ার কোন অবকাশই নেই আজ। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত