প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উচ্ছেদ অভিযানে হামলা, বিআইডব্লিউটিএ’র ম্যাজিস্ট্রেটসহ আহত ৫

সুজিৎ নন্দী : বুড়িগঙ্গা নদীর উত্তর অংশের শ্মশানঘাট এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার সময় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কর্মকর্তাদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই হামলায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। এসময় তিন হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকাল নয়টা থেকে উচ্ছেদ অভিযানের চতুর্থ পর্যায়ের দ্বিতীয় পর্বের তৃতীয় দিনে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও নদীর জায়গা উদ্ধারে কার্যক্রম শুরু করে বিআইডব্লিউটিএ। অভিযান চলাকালীন সময় বেলা এগারোটার দিকে শ্মশানঘাটের ইজারাদার ইব্রাহিম আহমেদ রিপনের নেতৃত্বে একদল শ্রমিক উচ্ছেদকারী কর্মকর্তাদের উপর হামলা করে।

বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক এ কে এম আরিফ উদ্দিন হামলার ব্যাপারে বলেন, আমরা উচ্ছেদের আগেই অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে তাদেরকে নোটিশ দিয়েছিলাম। কিন্তু তারা এই বিষয়টি আমলে নেয়নি। বৃহস্পতিবার আমরা যখন উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করতে আসি, তখন শতাধিক শ্রমিকের একটি দল আমাদের বাধা দিতে তেড়ে আসে। একপর্যায়ে ইজারাদার ইব্রাহিম তার দলবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা করে। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানসহ পাঁচজন আহত হয়।

তিনি আরও বলেন, হামলায় উচ্ছেদ অভিযান ব্যাহত হলেও ঘন্টাখানেক পর থেকে আমরা ফের উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছি। কোনো হামলা, ভয়ভীতি, পেশীশক্তি কিংবা টাকার জন্য উচ্ছেদ অভিযান থামানো হবে না। যেকোনো মূল্যে অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করে বুড়িগঙ্গার প্রাণ ফিরিয়ে আনা হবে।

এদিকে, হামলার খবর পেয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় হামলাকারীদের ম‚ল হোতা ইব্রাহিম পালিয়ে গেলেও তার ছোট ভাই বাপ্পীসহ তিনজনকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হবে বলে পুলিশ জানায়।

অভিযানে একটি দোতলা, একতলা ১৫টি, আধা পাকা ৪৫টি ও টিনের ঘর ২৯টিসহ মোট ৯০ টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এ সময় ৭একর জায়গা অবমুক্ত করা হয়। এ সময় নিলামে উচ্ছেদকৃত অবৈধ স্থাপনা নিলামে ১ কোটি ৪৪ লাখ ৬০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়। আগামী সোমবার সকাল ৯ টা থেকে শ্যামপুর লঞ্চঘাট থেকে পাগলা অভিমুখে বুড়িগঙ্গা নদীতে উচ্ছেদ অভিযান চলবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত