প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যীশু ফিলিস্তিনি ছিলেন, লিন্ডা সারসুরের টুইটে বিতর্ক

রাশিদ রিয়াজ : ফিলিস্তিনি-আমেরিকান রাজনৈতিক কর্মী লিন্ডা সারসুর শনিবার টুইটে যীশু ফিলিস্তিনি ছিলেন এমন বক্তব্য দেয়ার পর বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক চলছে। লিন্ডা বলেন, ধর্মীয় ব্যক্তিত্বের জাতীয় পরিচয় থাকতে পারে। তিনি বলেন, যীশু ফিলিস্তিনের নাজারেথে জন্মগ্রহণ করেন। এবং বিষয়টি কুরআনে বর্ণিত আছে। তামাটে ত্বক ও কোকড়ানো চুলের বিশেষ বৈশিষ্টের কথাও বলা হয়েছে। উল্লেখ্য যীশু মুসলমানদের কাছে তাদের নবী হযরত ঈসা (আ:) হিসেবে পরিচিত। কিন্তু যীশু খ্রিস্টের ফিলিস্তিন ও ইহুদি সূত্র নিয়ে বিতর্ক বেধেছে। লিন্ডা বলছেন, ফিলিস্তিন হচ্ছে জাতীয় ও ইহুদি হচ্ছে ধর্মীয় পরিচয়। যীশুকে নিয়ে ফিলিস্তিন ও ইহুদি সূত্র বা পরিচয় নিয়ে তাই কোনো বিতর্ক থাকতে পারে না। কারণ কেউ যদি বলেন হিটলার ও মুসোলিনি শে^তাঙ্গ ছিলেন তাহলে হিটলার জার্মান ও মুসোলিনি ইতালীয় ছিলেন এমন বিতর্কের কোনো মানে হয় না। টাইমস অব ইসরায়েল

১৮৫০ সালে মধ্যপ্রাচ্যর অস্তিত্ব ছিল না। লিন্ডা বলেন, ফিলিস্তিন জাতীয়তা এবং এটি কোনো ধর্ম নয়। ইসরায়েল রাষ্ট্রের জন্ম হওয়ার অনেক আগে শান্তিপূর্ণ সহবস্থানে ইহুদীরা ফিলিস্তিনে বাস করত। যীশু জন্মগ্রহণ করেন বেথেলহেমে যা এখনও ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষের অধীনে। তাই সত্য নিয়ে বিতর্কের অবকাশ নেই। যীশুর জন্মস্থান এখন ইসরাইলি সামরিক দখলে রয়েছে।

অবশ্য কোনো কোনো সমালোচক বলেন, ফিলিস্তিন একটি ধারণা এবং যীশুর মৃত্যুর ১’শ বছর পর পর্যন্ত এ ধরনের ধারণা অনুপস্থিত ছিল। এবং বেথেলহাম ও নাজারেথ জুদে এলাকার অংশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত