প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত এবং আমাদের স্বস্তি-অস্বস্তি

আলী রীয়াজ : বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ডই পুলিশের সঙ্গে তথাকথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’র প্রথম শিকার নয়, এমনকি ১ জুলাই একজনই মারা গেছে তাও নয়। ওইদিন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত হয়েছেন, তার বিরুদ্ধে ১৭টি মামলা ছিলো, কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ১২ মামলার এক আসামি, স্থানীয় ইউপি সদস্য নিহত হয়েছেন। সারাদেশে গত ছয় মাসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২০৪ জন নিহত হয়েছেন বলে মানবাধিকার সংস্থা-আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) হিসেবে দিয়েছে এসব ঘটনার আগেই।

দিন কয়েক আগে যা বলেছিলাম, তাই আবার বলি, ‘প্রতিদিন আমরা কেবল বিভিন্ন ধরনের হত্যাকা-, এমনকি বিচারবহির্ভূত হত্যাকা- নিয়ে মৌনতাই পালন করি তা নয়, অনেকেই দ্বিধাহীনভাবেই কাকে কখন ‘ক্রসফায়ারে’ দেয়া উচিত, এই বিষয়ে পরামর্শ দেন। এটাই হচ্ছে হত্যাকা-ের স্বাভাবিকীকরণ’ (‘হত্যার স্বাভাবিকীকরণের ফল নিষ্ক্রিয়তা’, প্রথম আলো, ২৭ জুন ২০১৯)। যারা গত কয়েকদিন ধরে একটা ‘ভালো ক্রসফায়ারের’ জন্য অনুনয় করছিলেন, তারা নিশ্চয়ই এখন স্বস্তি লাভ করতে পারেন। আর এই আত্মতৃপ্তিও পেতে পারেন যে, আপনারা চাইলে অনেক কিছুই হয়। আপনাদের কলমের/কী বোর্ডের কতো শক্তি! ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত