প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আড়াই হাজার বছরের প্রাচীন চীনা কবরে ইতিহাসের প্রাচীনতম গাঁজা সেবনের প্রমাণ লাভ

আসিফুজ্জামান পৃথিল : হাজারো বছর ধরে এই পৃথিবীতে গুরুত্বপূর্ণ শষ্য হিসেবে হচ্ছে গাঁজার চাষ। তবে ইতিহাসের কোন পর্যায় থেকে মানুষ গাঁজা সেবন শুরু করলো, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই গিয়েছিলো। তবে সম্প্রতি জানা গেছে মানুষ কমপক্ষে আড়াই হাজার বছর ধরে গাঁজার মৌতাতে কাবু হচ্ছে। সিএনএন।

পশ্চিম চীনের আড়াই হাজার বছর পুরাতন এক কবর খননে পাওয়া গেছে প্রাচীনতম গাঁজা সেবন নিদর্শন। এসময় মানুষ গাঁজা ব্যবহার করতো মানসিক প্রশান্তির ওষুধ হিসেবে। এই কবরে থাকা পোড়া কাঠ ও পাথর বিশ্লেষণ করেছেন চীন এবং জার্মানির বিজ্ঞানীরা। এগুলো গাঁজার প্রমাণ মিলেছে। পাওয়া গেছে অতি উচ্চ পরিমাণে টেট্রাহাইড্রোক্যানাবিওল (টিএইচসি)। গত বুধবার সায়েন্স অ্যাডভানসেস জার্নালে এই গবেষণা প্রকাশিত হয়।

গবেষকরা বলছেন কবর দেওয়ার আনুষ্ঠানিকতার সময় গাঁজা সেবিত হতো। সম্ভবত মৃত ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হতো গাঁজা। তবে বর্তমান সময়ের মতো করে তথন গাঁজা সেবন হতো না। সম্ভবত ধুপের মতো করে গাঁজা পোড়ানো হতো এবং পুরো এলাকায় ধোঁয়া ছড়িয়ে দেওয়া হতো।

এই বিষয়ে ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক ইন্সটিটিউট এর পরিচালক নিকোল বইভিন বলেন, ‘পাইপ প্রযুক্তি আসার আগে এটিই ছিলো গাঁজা সেবনের সেরা উপায়। তবে পাইপের জন্য খুব বেশিদিন অপেক্ষা করতে হয়নি।’ গাঁজা সেবনের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে এমন ১০টি পাত্রের সন্ধান মিলেছে কবর ও কবর সংশ্লিষ্ট সমাধিস্থলটিতে। এই সমাধিস্থটি চীন-পাকিস্তান সীমান্তের কাছে পামির পর্বতমালায় অবস্থিত। সম্পাদনা : ইকবাল খান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত