প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরিশালে তিন কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল : বরিশাল সদর উপজেলার ইছাগুড়া ও উজিরপুর উপজেলার দুটি গ্রামে পৃথক ঘটনায় সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীসহ তিন কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। তাদেরকে মঙ্গলবার রাতের বিভিন্ন সময়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে হাসপাতালের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ভর্তি হওয়াদের মধ্যে উজিরপুরের জল্লা ইউনিয়নের মাদ্রা গ্রামের বাসিন্দা ও স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে (১৪) এবং সদর উপজেলার ইছাগুড়া এলাকার ১৮ বছরের এক তরুনীকে ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ও উজিরপুরের গুঠিয়া ইউনিয়নের বান্না গ্রামের ১৪ বছরের এক কিশোরীকে গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

সূত্রমতে, মঙ্গলবার দুপুরে বান্না গ্রামের ওই কিশোরীকে কৌশলে নিজের নির্জন ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে প্রতিবেশী বখাটে রাকিব গাজী (১৮)। অভিযুক্ত রাকিব ওই গ্রামের জাফর গাজীর পুত্র। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই কিশোরীকে শেবাচিমে ভর্তি করা হয়েছে। ধর্ষিতা কিশোরীর মা অভিযোগ করেন, ঘটনার পরপরই বান্না ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হানিফ হাওলাদার বিষয়টি ধাঁমাচাপা দিতে মীমাংসার চেষ্টা চালায়। প্রাথমিকভাবে মীমাংসা না করতে পারায় ওই ইউপি সদস্য নিজেই ধর্ষক রাকিবকে এলাকা থেকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করেন। একইসাথে এ বিষয়ে থানায় কোনো প্রকার অভিযোগ কিংবা মামলা না করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ হুমকি প্রদর্শন করেছেন।

একই উপজেলার জল্লা ইউনিয়নের মাদ্রা গ্রামের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেছে একই গ্রামের বিরেন শীলের বখাটে ছেলে বিনোদ শীল। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে ওই স্কুল ছাত্রীর মা বাদি হয়ে ধর্ষক বিনোদ শীলসহ তার দুই সহযোগি অসীম ও তপনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। একইদিন রাতে বরিশাল সদর উপজেলার ইছাগুড়া এলাকার যৌন নিপিড়নের শিকার ১৮ বছরের এক তরুনীকে শেবাচিমের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

উজিরপুর মডেল থানার ওসি শিশির কুমার পাল জানান, জল্লা ইউনিয়নের মাদ্রা গ্রামের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হলেও গুঠিয়া ইউনিয়নের বান্না গ্রামের ১৪ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় এখনও থানায় মামলা দায়ের করা হয়নি। তার পরেও বিষয়টি শুনেই তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এছাড়া শিশুটির স্বজনদের সাথে যোগাযোগ করে মামলা দায়েরের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। উভয় ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত