প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

ধর্মান্ধ, উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠী কোনো যুক্তির ধার ধারে না

হাসান বিন বাংলা : পাকিস্তানি হায়েনা এবং তাদের এদেশীয় দোসররা একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে প্রচার করতো যে, পাকিস্তান না থাকলে ইসলাম ধর্ম থাকবে না! এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে তারা বলতে লাগলো যে, হিন্দু রাষ্ট্র ভারত এবং তাঁবেদার দুষ্কৃতিকারী শেখ মুজিব ও তার দল পূর্ব বাংলাকে ভারতের করদ রাজ্যে পরিণত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত! সুতরাং সব মুসলমানদের ঈমানী দায়িত্ব হলো সেই দুষ্কৃতিকারীদের প্রতিহত- দমন করা।

ঠ্যাঁডা মালেইক্কার মন্ত্রিসভায় জামায়াতের আব্বাস আলী খান ও মৌলানা ইউসুফের যোগদান উপলক্ষে এক সংবর্ধনা সভায় নরঘাতক গোলাম আযম বলেন … ‘জামায়াতে ইসলাম পাকিস্তান এবং ইসলামকে এক ও অভিন্ন মনে করে। সুতরাং পাকিস্তান যদি না থাকে তাহলে জামায়াত কর্মীরা দুনিয়ায় বেঁচে থাকার কোনো সার্থকতা মনে করে না!’

পাকিস্তান একটি রাষ্ট্র এবং ইসলাম একটি ধর্ম। পাকিস্তান নামক রাষ্ট্রে ইসলাম ধর্মের অনুসারীরা ছাড়াও অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের আবাসস্থল ছিলো। কিন্তু এই ধর্ম ব্যবসায়ীরা ধর্মের নামে একটি অন্যায় যুদ্ধ চাপাইয়া দেয়। যার পরিণতিতে ৩০ লাখ শহীদ এবং লাখ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে আমরা বিশ্ব মানচিত্রে মাথা উঁচু করে দাঁড়াই। রাষ্ট্র এবং ধর্ম সমার্থক নয়। পাকিস্তান না থাকলে ইসলাম ধর্ম থাকবে না, এই যুক্তি কোনো সুস্থ মস্তিষ্কের নয়। ১৯৪৭-এর পূর্বে তো পাকিস্তান নামে কোনো রাষ্ট্র ছিলো না। তখন কি পৃথিবীতে ইসলাম ধর্ম ছিলো না? আসলে এই ধর্মান্ধ উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠী কোনো যুক্তির ধার ধারে না। সুতরাং যারা যুক্তি মানে না তারা মানুষ নয় বরং তাদের পশু বলাটাই উত্তম। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত