প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

যে সব রোগের প্রতিষেধক পেঁপে বীজ

জান্নাতুল ফেরদৌসী: পেঁপে অনেকের পছন্দের একটি ফল। পেঁপে পাকা বা কাঁচা দুইভাবেই খাওয়া যায়। পেঁপের রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। শুধু পেঁপে নয়, পেঁপের বীজেও রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ। অন্যান্য ফলের মতোই পেঁপের খোসা ছাড়ালেই মিষ্টির শাঁসের সঙ্গে বীজ বেরিয়ে আসে। কিন্তু সেগুলো ভীষণ তেতো। তাই অনেকেই পেঁপের বীজ খেতে চান না।

বেঙ্গালুরুর পুষ্টিবিজ্ঞানী ডা. অঞ্জু সুদ জানিয়েছেন, “সব বীজই কিন্তু বিষাক্ত নয়। কিছু কিছু ফলের বীজ তেতো, সেগুলি খেলে পেটের কিছু সমস্যা হতে পারে। তবে পেঁপে বীজ খুব সহজে হজম হয়। এবং এর অনেক গুণ আছে।.”

পেঁপে বীজ সহজপাচ্য হওয়ায় পরিমিত পরিমাণে নিয়মিত খেতেই পারেন

কেন পেঁপে বীজ উপকারি?

১. ফ্রি র্যাজিক্যালস কমায়
পেঁপের বীজ মানেই প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পলিফেনলস আর ফ্ল্যাভোনয়েডস -এর সমাহার। এগুলো আমাদের সাধারণ সংক্রমণ যেমন কাশি-সর্দি মতো রোগ সারায়।

২. ওজন কমায়
ফলের বীজে ফাইবার থাকায় হজম এবং পেট পরিষ্কার হয় ঝটপট। এতে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা থাকে না। একই সঙ্গে এটি ব্লাড প্রেসারও নিয়ন্ত্রণ করে।

৩. অন্ত্র ভালো রাখে
বীজের মধ্যে থাকা প্রোটিওলাইটিক এনজাইম ক্ষতিকারক জীবাণুদের মেরে অন্ত্রকে ভালো রাখে।

৪. ঋতুস্রাবের ব্যথা কমায়
নিয়মিত এই ফলের বীজ খেলে ঋতুস্রাবের যন্ত্রণা এড়ানো যায়।

৫. নিয়ন্ত্রণে থাকে কোলেস্টেরল
পেঁপের বীজে প্রচুর ফ্যাটি অ্যাসিড, বিশেষ করে ওলেইক অ্যাসিড ৩ থাকে। যা নিয়ন্ত্রণে রাখে কোলেস্টেরল।

এছাড়াও উচ্চ রক্তচাপ কমাতেও পেঁপের বীজ অত্যন্ত উপকারি। ফসফরাস থাকায় দৃষ্টিশক্তি বাড়াতেও কাজে আসে পেঁপের বীজ।

কীভাবে খাবেন?
ভাবছেন এতো তেতো স্বাদের বীজ খাবেন কী করে? নো চিন্তা। ভালো করে গুঁড়িয়ে পেঁপে বীজ স্মুদি, ফলের রস, সরবত বা চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এছাড়া, চিনি, মধু বা গুড় মিশিয়েও খেতে পারেন।

তথ্যসূত্র: এনডিটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত