প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুরগির উদ্ভিজ্জাত বিকল্প খুজছে কেএফসি

আসিফুজ্জামান পৃথিল : সময়ের সঙ্গে জনপ্রিয় হচ্ছে উদ্ভিজ্জাত আমিষের ধারণা। এই জনপ্রিয়তার স্রোতে ভেসে কেন্টাকি ফ্রায়েড চিকেনও (কেএফসি) এখন এই বিকল্পের দিকে ঝুঁকতে চাচ্ছে। এখন পর্যন্ত বিভিন্ন ফাস্টফুড চেইন গরুর মাংস আর সসেজের বিকল্প হিসেবে ‘মাংসহীন মাংস’ ব্যবহার করেছে। তবে কেএফচি চায় মুরগির বিকল্প হিসেবে কৃত্রিম মাংস ব্যবহার করতে। সিএনএন।

স্বাস্থ্য পরিবেশগত কারণে গ্রাহকরা দ্রুত উদ্ভিজ্জাত মাংসের দিকে ঝুঁকছেন। মাংসের মতো প্রোটিনের বাজার তাই দ্রুত বাড়ছে। ২০২৩ সালের মধ্যে এ ধরণের বিকল্প মাংসের মার্কিন বাজার ২৫০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যেতে পারে। ২০১৮ সালে এই বাজার ছিলো ১৪০ কোটি ডলারের। ২০১৮ সালে এ ধরণের মাংসের বৈশি^ক বাজার ছিলো ১ হাজার ৮৭০ কোটি ডলারের। আর ২০২৩ সালে তা দাঁড়াতে পারে ২ হাজার ৩০০ কোটি ডলার। এই তথ্য দিয়েছে গবেষণা সংস্থা ইউরোমনিটর ইন্টারন্যাশনাল। তবে এটি সম্পূর্ণই গরুর মাংসের বিকল্প বাজার। মুরগি যোগ হলে এই বাজার আরো অনেক দ্রুত বাড়বে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

কেএফসি বিশে^র বৃহত্তম ফাস্টফুড চেইনের একটি। প্রতিবছর সারাবিশ্বে তারা কয়েকশ কোটি মুরগি ব্যবহার করে। তবে পরিবেশের উপর গবাদিপশুর যতটা নেতিবাচক ভূমিকার রয়েছে, মুরগির তা নেই। কিন্তু মুরগি উৎপাদনেও প্রচুর গ্রীন হাউজ গ্যাস নিস:রিত হয়। কেএফসির এই উদ্যোগ কিছুটা হলেও বৈশ্বিক উষ্ণতা কমাতে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ