প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্রেক্সিট নিয়ে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের পেছনে এবছর ১০ কোটি পাউন্ড ব্যয় করেছে ব্রিটিশ সরকার

সান্দ্রা নন্দিনী : ব্রিটিশ মন্ত্রিপাড়া হোয়াইট হল থেকে ফাঁস হওয়া চাঞ্চল্যকর একটি তথ্য গার্ডিয়ানের হাতে এসেছে যেখানে দেখা যায়, চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট-সহ এই বিষয়ে নানাবিধ পরামর্শ নিতে জনগণের প্রায় ১শ’ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় করেছে দেশটির সরকার। গোপন খসড়া প্রতিবেদনটি ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ব্যয় যাচাই-বাছাইয়ের দায়িত্বে থাকা ন্যাশনাল অডিট অফিস-এনএও তৈরি করেছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, সরকারের বিভাগগুলো ব্রেক্সিট পরামর্শকদের পেছনে এবছরের এপ্রিল মাস পর্যন্তই ৯ কোটি ৭০ লাখ পাউন্ড খরচ করেছে। এতে এনএও’র পক্ষ থেকে সমালোচনা করে বলা হয়েছে, পরামর্শকদের সাথে বৈঠকগুলোতে স্বচ্ছতাও নিশ্চিত করা হয়নি। গার্ডিয়ান

‘অফিশিয়াল সেন্সেটিভ’ আখ্যা দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনটি আরও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়, হোয়াইট হলের পক্ষ থেকে ব্রেক্সিট বিষয়ক পরামর্শের পেছনে খরচের পরিমাণ ২০২০ সালের মধ্যে ২৪ কোটি পাউন্ড পর্যন্ত পৌঁছে যেতে পারে। সরকারের পক্ষ থেকে ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়া নিশ্চিত করতে নিয়মিতভাবে উচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত পরামর্শদের সঙ্গে বৈঠক করা হচ্ছে। প্রতিবেদনে দেখা যায় বৈঠকবাবদ ব্যয় ২০১৫-১৬ সালে ৫১ কোটি ৩০ লাখ পাউন্ড থেকে বেড়ে ২০১৭-১৮ সালে ১৫৪ কোটি পাউন্ড দাঁড়ায়।

পরামর্শকদের সঙ্গে ব্রিটিশ সরকারের অধিক বৈঠককৃত ৫টি বিভাগের তালিকাও প্রতিবেদনে দেওয়া হয়। সেগুলো হলো, কেবিনেট অফিস, স্বরাষ্ট্র বিভাগ, বর্ডার ডেলিভারি গ্রুপ, স্বাস্থ্য ও সামাজিক সুরক্ষা মন্ত্রণালয়, পরিবেশ, খাদ্য ও গ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ