প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বকাপে জন্মভূমিকে সাপোর্ট করবেন না পিটারসেন

স্পোর্টস ডেস্ক : ক্রিকেটের সঙ্গে যোগাযোগ আছে এমন মানুষ কেভিন পিটারসেন নামের সঙ্গে খুবই পরিচিত। ইংল্যান্ডের হয়ে ১০৪টি টেস্ট ও ১৩৬টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। কিন্তু নান্দনিক এ ব্যাটিং শিল্পীর জন্ম কিন্তু ইংল্যান্ডে না। দক্ষিণ আফ্রিকার নাটালে জন্ম নিলেও তিনি ক্যারিয়ার পার করেছেন ইংলিশদের হয়ে। আর অবসরে যাওয়ার পর নতুন সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে কেপিকে। আসন্ন বিশ্বকাপ ঘিরে প্রশ্নটা আবারও করা হয়েছে এই ব্যাটসম্যানকে। ইংল্যান্ড ও দ.আফ্রিকার মধ্যে কোন দলকে সমর্থন দিচ্ছেন পিটারসেন?

এমন প্রশ্নের উত্তর সরাসরি দিয়ে দিয়েছেন পিটারসেন। টুইটারে বলে দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম হতে পারে, এখন নিজের তাগিদে সেখানে নিয়মিত দেখা গেলেও ইংল্যান্ডের প্রতিই তার সব আনুগত্য। বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকেই সমর্থন দেবেন।

২০০৪ সালে অভিষেক হলেও পিটারসেন আলোচনায় এসেছিলেন পরের বছর। দ.আফ্রিকার মাটিতে ইংল্যান্ডের হয়ে মাঠে নামা ইতিবাচকভাবে নেননি স্বাগতিক দর্শকেরা। মাঠে নেমে স্বাগতিকদের দুয়ো শুনতে হয়েছিল। বেইমান গালি শোনাটা খুব স্বাভাবিক হয়ে উঠেছিল। প্রতিক‚ল পরিবেশেও নিয়মিত ঝড় তুলেছেন। ৫ ম্যাচে দুই সেঞ্চুরি আর এক ফিফটিতে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন পিটারসেন।

পিটারসেনের ইংল্যান্ড প্রীতির কারণ তার স্বপ্ন পূরণ।অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে লর্ডসের মতো ভেন্যুতে অভিষেক করিয়ে সেটা পূরণ করেছে ইংল্যান্ড। পিটারসেন টুইটারেও প্রকাশ করেছেন সে কৃতজ্ঞতা, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা ছেড়েছিলাম একটা বালক হিসেবে এবং ছোটবেলার স্বপ্ন পূরণের অবিশ্বাস্য এক সুযোগ পেয়েছিলাম। ইংল্যান্ড আমাকে সে সুযোগ দিয়েছে এবং আমি ১০৪টি টেস্ট ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছি।

২০১৪ সালে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন তিনি। এখন বন্য প্রাণীদের চোরা শিকারিদের হাত থেকে বাঁচাতে লড়াই করছেন। এ কারণে নিয়মিত দ.আফ্রিকায় দেখা যাচ্ছে তাকে। তবে দুই দেশে আসা-যাওয়াটা উপভোগ করলেও বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে সমর্থন দিবেন কেপি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত