প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মন্ত্রিসভায় না থাকার বিষয়টি মোদীকে চিঠিতে জানালেন অরুণ জেটলি

রাশিদ রিয়াজ : ভারতের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব সামলানোর পাশাপাশি গত দেড় বছর ধরেই শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। এরফলে গত কয়েকমাস ধরে তার পক্ষে অর্থমন্ত্রণালয়ে নিয়মিত উপস্থিত হওয়া সম্ভব হয়নি। এরপর দ্বিতীয়বার নরেন্দ্র মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিতে যখন যাচ্ছেন তখন তার মন্ত্রিসভা থেকে শারীরিক অসুস্থতার কারণে অব্যাহতি চাইলেন অরুণ জেটলি। বুধবার চিঠি দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেন এবং চিঠিটি টুইট করেন।

চিঠিতে অরুণ জেটলি বলেন, ‘নতুন সরকারে কোনও রকম দায়িত্বের ভাগিদার হতে চাই না। আমি আপনার (মোদী) উদ্দেশে লিখিত ভাবে, আনুষ্ঠানিক অনুরোধ জানাচ্ছি যে আমার নিজের প্রতি কিছু দায়িত্ব আছে, আমার চিকিৎসা, আমরা শরীর ও আরও কিছু, যার জন্য আমি বর্তমান সরকারের কোনো রকম দায়িত্ব নিতে সক্ষম নই।’

জেটলি জানান, তিনি গত ১৮ মাস ধরে বিভিন্ন রকম শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন। এমনকি তিনি একথাও জানিয়েছেন যে, লোকসভা নির্বাচনের পরে যখন প্রধানমন্ত্রী মোদী কেদার নাথ মন্দির দর্শনের উদ্দেশ্যে যান , তখনি তিনি এই বিষয়ে কথা বলেছিলেন। তিনি মৌখিক জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, এমত অবস্থায় কোনো রকম দায়িত্ব নেওয়া সম্ভব হবে না তাঁর পক্ষে। আমাকে নিজের শরীর ও চিকিৎসার বিষয়টা দেখতে হবে।

গত রোববার ভারত সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল যে, অরুণ জেটলির শারীরিক অবস্থা ভালো নয়, এটি সম্পূর্ণ গুজব। মিডিয়ার কোনো ভাবেই এমন গুজব রটানো উচিত না। আসলে জেটলি তার স্বাস্থ্যের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নতুন মন্ত্রী সভার অংশ হবেন না, এমন একটা খবর আগেই এসেছিল। তার শারীরিক অবস্থার অবনতির জন্য টানে মাঝে মাঝেই যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন যেতে হয়। ৬৬ বছরের জেটলি খুবই দুর্বল হয়ে পড়েছেন। গত সপ্তাহে তাকে ভর্তি পর্যন্ত করা হয় এবং সমস্ত কিছু পরীক্ষা করে দেখা হয়। এমনকি লোকসভা নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টির এত বড়ো জয়ের পরেও বিজয় উৎসবে তিনি অংশ নেননি। এনডিটিভি/টাইমস অব ইন্ডিয়া

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত