প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্যারিয়ারে প্রথম আবার হতে পারে শেষ বিশ্বকাপ যাদের

স্পোর্টস ডেস্ক : ওয়ানডে ক্রিকেট মহাযজ্ঞ শুরু হতে আর মাত্র আর কয়েক ঘণ্টা বাকি। বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড-দ. আফ্রিকার ম্যাচের মধ্য দিয়ে উঠছে এই আসরের পর্দা। বিশ্বে ক্রীড়াশৈলীতে বছরের পর বছর দর্শকেরা মুগ্ধ হলেও এবারই তাদের প্রথম বিশ্বকাপ। সফল ক্যারিয়ারে বিশ্বকাপে না খেলার একটা অপূর্ণতা থেকে গেছে তাদের। নামগুলো দেখলে কিন্তু চমকে উঠবেন যে কোনো ক্রিকেটপ্রেমীই।

কেদার যাদব : ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নামবেন কেদার যাদব। ইংল্যান্ডের বিমান ধরার আগে আইপিএল খেলা চলাকালে কাঁধে চোট পেয়েছিলেন। বিশ্বকাপের দুই প্রস্তুতি ম্যাচেও এখনও মাঠে নামা হয়নি কেদারের। পুরোপুুরি ফিট না হয়ে ওঠার কারণেই এখনও বাইশ গজে ফেরা হয়নি তার।
প্রসঙ্গত ক্যারিয়ারেরর প্রথম বিশ্বকাপই সম্ভবত শেষ বিশ্বকাপ কেদারের। যাদবের বয়স এখন ৩৪, ২০২৩ বিশ্বকাপের বয়স দাঁড়াবে ৩৮। চার বছর পর আবার দেশের জার্সিতে বিশ্বকাপে মাঠে নামা কার্যত অসম্ভব এই অলরাউন্ডারের। সে কারেণ সম্ভবত ইংল্যান্ড বিশ্বকাপই কেদারেরে ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ।

উসমান খাজা : অস্ট্রেলিয়ার বাঁ-হাতি এই ক্রিকেটারের কাছেও এটাই প্রথম বিশ্বকাপ। দেশের জার্সিতে ৩১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন খাজা। বয়স এখন ৩২। অঙ্ক বলছে ভারতের মাটিতে হতে চলা, ২০২৩ বিশ্বকাপের অজিদের মিডল অর্ডারের এই ব্যাটিং তারকার বয়স দাঁড়াবে ৩৬ বছর। বলাই যায়, সেই বয়সে তরুণদের ভিড়ে বাদ পড়তে পারেন উসমান খাজা। অজি ব্যাটসম্যানের কাছেও তাই ক্যায়িরারে প্রথম বিশ্বকাপই সম্ভবত শেষ বিশ্বকাপ।

কলিন মুনরো : নিউজিল্যান্ডের বাঁ-হাতি ওপেনারের ক্যারিয়ারেও এটাই প্রথম বিশ্বকাপ। মুনরোর বয়স ৩২। চার বছর পর বয়স দাঁড়াবে ৩৬। সে কারণেই ধরে নেয়া যায়, প্রথম বিশ্বকাপই সম্ভবত শেষ বিশ্বকাপ মুনরোর। নিউজিল্যান্ড দলের অন্যতম প্রধান সদস্য বিস্ফোরক এই ব্যাটসম্যান।

শন মার্স : অস্ট্রেলিয়ার ডান হাতি ব্যাটসম্যানের কাছে এটাই প্রথম বিশ্বকাপ। ২০০৮ সালে ওয়ানডে অভিষেক হলেও এখনও পর্যন্ত দেশের হয়ে বিশ্বকাপে সুযোগ পাননি শন মার্স। এবার অবশ্য দলের মিডল অর্ডারে তাকে যোগ্য বলে মনে করেছেন নির্বাচকরা। ৩৫ বছর বয়সে বিশ্বকাপে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পেয়েছেন। বলার অপেক্ষা রাখে না এটাই শেষ বিশ্বকাপ মার্সের।

ক্রিস মরিস : দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডারের কাছে এটাই প্রথম বিশ্বকাপ। বয়স ৩২, পরের বিশ্বকাপে দলে তরুণদের ভিড়ে যাওয়া নাও পেতে পারেন মরিস।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত