প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আল সালাম ৩১৩ গ্রুপের সাথে রাজনৈতিক ও ধর্ম প্রভাবিত অপরাধের যোগাযোগের সম্ভাবনা

মুসবা তিন্নি : জার্মানির নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়া (এনআরডাব্লিউ) রাজ্যের ১১ শহরের ৪৩ স্থানে একযোগে অভিযান চালায় পুলিশ৷ ‘আল-সালাম-৩১৩’ নামে একটি সংগঠিত বাইকার দলের বিরুদ্ধে ছিল ওই অভিযান৷ ডয়েচে ভেলে
অভিযানে পুলিশ আল-সালাম গ্রুপের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে৷ গ্রুপটির বেশিরভাগ সদস্যই ইরাকি ও সিরিয়ান বংশোদ্ভুত শিয়া মুসলিম৷ অভিযানের প্রস্তুতি চলেছে বিগত কয়েক মাস ধরে,’’ বলেছেন এনআরডাব্লিউ রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী হ্যারবার্ট রয়েল৷ ‘ড আলসালাম জার্মানি’ নামে একটি ফেসবুক পাতা রয়েছে ‘আল-সালাম-৩১৩’ গ্রুপের, যেখানে ২০১৭ সালের মে মাসের পর থেকে আর কোনো পোস্ট দেওয়া হয়নি৷ সাত মিনিট দৈর্ঘ্যের একটি ভিডিও রয়েছে, যাতে নির্দিষ্ট পোশাক ও সানগ্লাস পরা অবস্থায় দেখা যায় এর সদস্যদের৷

ভিডিওতে গ্রুপটির নেতা নিজের পরিচয় দিতে গিয়ে বলেন, আপনার উপর শান্তি বর্ষিত হোক৷ আমি সালাম ক্রু ৩১৩-এর আবু মেহদি৷ সেখানে আল-সালাম গ্রুপের নেতা নিজের নাম আবু মেহদি হিসেবে উল্লেখ করলেও তার নাম মোহাম্মদ বুনিয়া বলে পরবর্তী অনুসন্ধানে উঠে আসে৷

ভিডিওতেই তিনি জানান, ২০১৬ সালে গ্রুপটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে৷ জার্মানি, সুইডেন, ডেনমার্ক ও নেদারল্যান্ড সহ বিভিন্ন ইউরোপীয় দেশে কার্যক্রম থাকার কথা উল্লেখ করেন তিনি একইসঙ্গে হুমকির সুরে তিনি বলেন, তোমাদের কাউকে কাউকে ব্যাপক পিটুনি দেওয়া দরকার, আরব স্টাইলে৷ এবং তোমরা জানো, আমি এর মাধ্যমে কী বুঝাতে চেয়েছি৷’’ কিছুটা সময় নিয়ে আবু মেহদি বলেন, এই গ্রুপ কোনো মাফিয়া দল নয়৷ গ্রুপের নেতার আবু মেহেদি ডাকনামের বিশেষ ধর্মীয় অর্থ রয়েছে৷ শিয়া ধর্মমতে: ইমান ‘মাহদি’ বা ‘মেহেদি’ শেষ বিচারের দিনের আগে পৃথিবীতে আসবেন এবং অশুভকে দূর করবেন৷ আর এই গ্রুপের নামে ৩১৩ সংখ্যার সঙ্গেও ধর্ম বিশ্বাসের মিল রয়েছে৷ শিয়ারা বিশ্বাস করেন, ৩১৩ জন অনুসারী নিয়ে পৃথিবীতে পুনরুত্থান হবে ইমাম মেহেদির৷ এরা কি ইরাকি ‘মাহদি আর্মির’ অনুগামী ?

এনআরডাব্লিউ’র অভ্যন্তরীণ মন্ত্রণালয় বলছে, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে আল-সালাম-৩১৩ গ্রুপ কেবল সাধারণ অপরাধীদের দল নয়৷ এর সঙ্গে রাজনৈতিক ও ধর্ম-প্রভাবিত অপরাধের সংশ্লেষ থাকতে পারে৷ আল-সালাম গ্রুপটি ইরাকের শিয়া ধর্মীয় নেতা মুকতাদা আল-সদরের অনুগত ‘মাহদি আর্মির’ সঙ্গে সম্পর্কিত বলেও গুজব রয়েছে৷ এর সদস্যরা এক ধরনের সাদা পরিচয়চিহ্ন পরে থাকেন, যার সঙ্গে মিল পাওয়া যায় মাহদি আর্মির৷ যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে, ২০০৩ সালে অ্যামেরিকা ইরাক আক্রমণের পর মাহদি আর্মি প্রতিষ্ঠিত হয়৷ এই সংগঠনের রয়েছে কয়েক হাজার সদস্য। সম্পাদনা : কায়কোবাদ মিলন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত