প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১১ মাসে বেনাপোল বন্দরে রাজস্ব ঘাটতি ১৩৪৬ কোটি টাকা

মুসবা তিন্নি : ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ১১ মাসে দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর বেনাপোলে এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে এক হাজার ৩৪৬ কোটি টাকা রাজস্ব ঘাটতি হয়েছে। কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বলছে, শুল্ক ফাঁকি রোধে এই বন্দরে কড়াকড়ি আরোপ করায় আমদানি কমে গিয়ে রাজস্ব ঘাটতি বেড়েছে। তবে ব্যবসায়ীদের দাবি, বাণিজ্যের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন অনিয়ম , অব্যবস্থাপনা , শুল্ক ফাঁকি ও কাস্টমসে ঘুষের দাবিতে হয়রানি বেড়ে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বাংলা ট্রিবিউন

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দেশের ২৩টি স্থলবন্দরের মধ্যে বর্তমানে চালু আছে ১৩টি। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় বেনাপোল বন্দর। রাজস্ব আদায়ে সবসময় এগিয়ে থাকে এ বন্দরের কাস্টমস হাউজ। স্বাধীনতার পর থেকে ভারতের সঙ্গে এ পথেই বাংলাদেশের বেশিরভাগ বাণিজ্য হয়েছে। প্রতিবছর এ বন্দর দিয়ে প্রায় ৬০ হাজার কোটি টাকার পণ্য আমদানি হয়ে থাকে, যা থেকে সরকার প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করে। বন্দরের ধারণ ক্ষমতা ৪২ হাজার মেট্রিক টন। সেখানে সব সময় পণ্য মজুত থাকে প্রায় দেড় লাখ মেট্রিক টনের মতো।

বর্তমানে বন্দরে ২৮টি পণ্যাগার, আটটি ওপেন ইয়ার্ড, একটি ভারতীয় ট্রাক টার্মিনাল, একটি রফতানি ট্রাক টার্মিনাল ও একটি ট্রান্সশিপমেন্ট ইয়ার্ড রয়েছে, যা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। বন্দর সূত্র জানায়, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বেনাপোল বন্দরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪ হাজার ১৯৫ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। আদায় হয়েছিল ৪ হাজার ১৬ কোটি ২৪ লাখ টাকা এবং ঘাটতি ছিল ১৭৯ কোটি ৬৪ লাখ টাকা।

চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা পাঁচ হাজার ৪৮৩ কোটি টাকা। গত বছরের জুলাই থেকে এ বছরের ২১ মে পর্যন্ত ১১ মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে রাজস্ব ঘাটতি রয়েছে এক হাজার ৩৪৬ কোটি টাকা। সম্পাদনা : কায়কোবাদ মিলন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ