প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়তে চেয়েছিলাম, দলের জন্যই রয়ে গেলাম, বললেন অভিমানী মমতা

শেখ নাঈমা জাবীন : ৪২এ ৪২ চাই। এই লক্ষ্যেই এগিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী। লক্ষ্য পূরণে কোনও কার্পণ্য করেননি। উত্তর থেকে দক্ষিণ, পূর্ব থেকে পশ্চিম কোনও দিকেই প্রচারে খামতি রাখেননি। তারপরেও যখন ফলে মাত্র ২২টি আসন পেল তৃণমূল, তখন একে কোনও সমীকরণকেই মেলাতে পারলেন না তৃণমূল নেত্রী। ফলাফল প্রকাশের তিন দিন পর এই বিপর্যয়ের কারণ সন্ধানে জরুরি বৈঠক ডাকেন তৃণমূল সুপ্রিমো। শনিবার বিকেল চারটে থেকে কালীঘাটে দলের নির্বাচিত প্রতিনিধি এবং জেলা সভাপতিদের নিয়ে পর্যালোচনায় বসেছিলেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রায় ঘণ্টাখানেক বৈঠক করার পর সাংবাদিক বৈঠকে মমতা যা বললেন, তাতে অনেকেই চমকে গিয়েছিলেন। আজকাল

এই প্রথম অভিমানী মমতাকে দেখলেন রাজ্যবাসী। মমতা বললেন, মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়তে চাই। মমতার মত লড়াকু নেত্রীর মুখে এই কথা শুনে চমকে গিয়েছিলেন সাংবাদিকরাও। কিছুক্ষণ চুপ করে থেকে মমতা বললেন,‘ দলের কাছে এই প্রস্তাবই দিয়েছিলাম, কিন্তু সেটা কেউ মানতে চাননি। ৬ মাস ধরে ক্ষমতাহীন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে ছিলাম। এই রাজনৈতিক পরিবেশে সত্যি কোনও রাজনৈতিক লড়াই করা যায় না।’ ভোটের ফলাফল এই পর্যায়ে তৃণমূলের বিপক্ষে যেতে পারে এটা কল্পনাতীত জানিয়ে মমতা বলেন, নির্বাচন কমিশন প্রকাশ্যে বিজেপির হয়ে কাজ না করলে বিজেপি একা ৩০০ অতিক্রম করতে পারে না। আবারও ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ উস্কে দিয়ে মমতা বলেন, আগে থেকেই ইভিএমে প্রোগ্রামিং করে রেখেছিল বিজেপি, নইলে রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, দিল্লিতে অন্য দল একটিও সিট পাবে না এটা হতে পারে না। টোটাল সেটিং করেছিল বিজেপি।’

একই সঙ্গে মমতা জানিয়েছেন, এতদিন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মানুষের জন্য কাজ বেশি করেছিলেন। এবার থেকে দলের দিকে নজর বেশি দেবেন। সম্পাদনা : কায়কোবাদ মিলন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত