প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বগুড়ায় এসআইবিএল ব্যাংক শাখার ৩১ কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগে যুবলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার

বগুড়া প্রতিনিধি : সংঘবদ্ধভাবে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের (এসআইবিএল) এর বগুড়া শাখার ৩১ কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার টাকা লোপাটের বগুড়ার যুবলীগের সাবেক নেতা মাকসুদুল আলম খোকনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে শহরের নামাজগড় এলাকার প্রত্যাশা হাউজিং থেকে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে সদর থানা পুলিশ।

আটক মাকসুদুল আলম খোকন শহরের চকসুত্রাপুর এলাকার সাবেক দারোগা মৃত নূরল আলমের ছেলে এবং বগুড়ার প্রভাবশালী নেতা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহনের ভাই ।

দলীয় এবং পারিবারিক প্রভাবের কারণে পুলিশ গ্রেফতারের বিষয়টি গোপন রেখে শনিবার তাকে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয় পুলিশ। তবে স্যোশাল মিডিয়া ফেসবুক আইডির স্ট্যাটাস থেকে খবরটি জেনে মিডিয়া কর্মীরা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ করলেও পুলিশ এই গ্রেফতারের ব্যাপারে কিছু জানাতে চায়নি। খোকন আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে এবং বগুড়া জেলা যুবলীগের বিগত কমিটির সদস্য ছিল।

এ ব্যাপারে দুদকের উপ পরিচালক আমিনুল ইসলাম মোবাইল ফোনে জানান, ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ মামলার চার্জশিট ভুক্ত ওয়ারেন্টের আসামি মেসার্স মাসফা এন্টারপ্রাইজের মালিক মাকছুদুল আলম খোকন আদালতে আত্মসমর্পন না করায় পুলিশ ওয়ারেন্ট তামিলের অংশ হিসেবে তাকে গ্রেফতার করেছে ।

উল্লেখ্য ৪০ কোটি ৮৩ লাখ ৭৬ হাজার অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে ২০১১ সালের ৩০ নভেম্বর সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের বগুড়া শাখার ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম বগুড়া সদর থানায় ২২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে দুদক মামলাটি তদন্ত করে ৯ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করে আর আত্মসাৎকৃত টাকার অংশ দাঁড়ায় ৩১ কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার টাকা ।

চার্জশিটের বিবরণ অনুযায়ি, ২০০৮ সালের ২৩ অক্টোবর থেকে ২০১১ সালের ৩ নভেম্বর পর্যন্ত একটি সংঘবদ্ধ জালিয়াত চক্রের হোতা হিসেবে ব্যাংকের বগুড়া শাখার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপক (সাময়িক বরখাস্ত) রফিকুল ইসলাম, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ শাখার ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট (সাময়িক বরখাস্ত) মো. আতিকুল কবির, বগুড়া শাখার জ্যেষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তা (সাময়িক বরখাস্ত) মো. মাহবুবুর রহমানের যোগসাজশে ব্যাংকের গ্রাহকদের হিসাব থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করেন।

আত্মসাৎকৃত অর্থের মধ্যে মাকসুদুল আলম খোকন একাই আত্মসাৎ করেন ৬ কোটি টাকা ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ