প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সমস্যার সুষ্ঠু রাজনৈতিক সমাধান চায় কাতার

আব্দুর রাজ্জাক : কাতার শুক্রবার জানায়, ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের শান্তির জন্য যে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি প্রয়োজন তা একটি সুষ্ঠু রাজনৈতিক পরিবেশ ছাড়া অর্জন হবে না। ইতোমধ্যেই ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীর ও গাজায় বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অন্যতম রাষ্ট্র কাতার। এ মসে দেশটি সেখানে ৪৮ কোটি ডলার অর্থ সহায়তাও দিতে যাচ্ছে। রয়টার্স, ফার্স্টপোস্ট

কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জানায়, ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের সমস্যা সমাধানে যত্নশীল মনোভাব দেখাতে হবে। থাকতে হবে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সম্মিলিত প্রচেষ্টাও। নচেৎ রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে এখানে কোনো অর্থনৈতিক সম্ভাবনা তৈরি হবে না। এমনকি রাজনৈতিক সমাধান ছাড়া সম্ভাব্য শান্তি প্রস্তাবের শর্তগুলোও ফলপ্রসূ হবে না।

আগামী মাসেই বহুল প্রতিক্ষিত ইসরায়েল-ফিলিস্তিন শান্তি প্রস্তুাব প্রকাশ করতে যাচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন। এই শান্তিপ্রস্তাব নিয়ে বাহরাইনে জুনে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনও অনুষ্ঠিত হবে। তবে এটি মেনে নেয়া বা ফিলিস্তিনিদের স্বার্থ রক্ষা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। কেননা সম্ভাব্য এই শান্তি প্রস্তাবের অধিকাংশ ধারায় ইসরায়েলের স্বার্থ রক্ষা করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ট্রাম্প এটিকে ‘শতাব্দির সেরা চুক্তি’ বলে অভিহিত করেন। এবং চুক্তিটি ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীর ও অবরুদ্ধ গাজায় আরব রাষ্ট্রগুলোকে বিনিয়োগে আকৃষ্ট করবে বলেও সম্প্রতি মন্তব্য করেন। তবে এর প্রধান সমস্যা রাজনৈতিক অস্থিরতার সমাধান না হলে কোনো স্বার্থই হাসিল হবে না বলে মন্তব্য করে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। কেননা, ইতোমধ্যেই ট্রাম্পের সম্ভাব্য শান্তি প্রস্তাবকে ইসরায়েলের পক্ষপাতিত্বমূলক আখ্যা দিয়ে তা অনুমোদন করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত