প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বকাপ ক্রিকেট, আর বাকি ০৬ দিন
অবশেষে লন্ডনের দ্য ওভালে না খেলার অপূর্ণতা শেষ হতে চলেছে টাইগারদের

আক্তারুজ্জামান : ব্রিটেন নামের মধ্যে কেমন যেন একটা আভিজাত্যের ভাব আছে। একই রকম ভাব পাওয়া যায় দেশটির শহরগুলোর নামের মধ্যেও। বিশ্বের অভিজাত সেই দেশের ১০টি শহরের ১১টি মাঠে অনুষ্ঠিত হবে ১২তম ক্রিকেট বিশ্বকাপ। ক্রিকেট মহাযজ্ঞ শুরু হতে বাকি আর মাত্র ৬দিন। এরই মধ্যে উৎসবের রঙে রঙিন হয়ে উঠছে শহর আর মাঠগুলো। দৈনিক আমাদের নতুন সময়ের পাঠকদের জন্য এবারের বিশ্বকাপ কাউন্টডাউনে স্টেডিয়ামগুলো নিয়ে আয়োজনের প্রথম পর্ব।

২০ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেললেও লন্ডনের দ্য ওভালে এখনো খেলা হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। এবারের বিশ্বকাপ দিয়ে সেই অপূর্ণতা ঘুচতে চলেছে টাইগার সেনাদের। বিশ্বকাপ মিশন শুরুর প্রথম দুটি ম্যাচ এই ওভালের মাঠেই খেলবেন মাশরাফিরা। একটি ২জুন দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অপরটি ৫ জুন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে।

১. বার্মিংহামের এজবাস্টন : ইংল্যান্ডের কাউন্টি দল ওয়ারিকশায়ারের নিজস্ব মাঠ এজবাস্টন। বার্মিংহাম শহরে ১৮৮২ সালে ক্রিকেটের জন্য উন্মক্ত করে দেয়া হয় এজবাস্টনের মাঠটি। ঘরোয়া ক্রিকেটের পাশাপাশি সব ধরণের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের বিশ্বকাপে মোট ৫টি ম্যাচ গড়াবে এই মাঠে। যার মধ্যে একটি সেমিফাইনালও আছে। ২৫ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়ামটি যুক্তরাজ্যের চতুর্থ বৃহত্তম।
বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে নিউজিল্যান্ড-দ.আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান, ইংল্যান্ড-ভারত, বাংলাদেশ-ভারতের ম্যাচ এবং দ্বিতীয় সেমিফাইনাল এখানে অনুষ্ঠিত হবে।

২. নটিংহ্যামের ট্রেন্টব্রিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ড : ইংল্যান্ডের নটিংহ্যাম্পশায়ারে ১৮৪১ সালে স্থাপিত হয় ট্রেন্টব্রিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ড। স্থাপিত হওয়ার পর ১৭৮ বছর পেরিয়ে গেছে। আর দিনে দিনে ঐতিহ্য সঞ্চয় করেছে মাঠটি। এর দর্শক ধারণক্ষমতা সাড়ে ১৭ হাজার।
এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের একটি ম্যাচ সহ মোট ৫টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ট্রেন্টব্রিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে। ২০ জুন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এই গ্রাউন্ডে খেলবে বাংলার টাইগাররা। এছাড়া পাকিস্তান-উইন্ডিজ, পাকিস্তান-ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া-উইন্ডিজ এবং নিউজিল্যান্ড-ভারতের ম্যাচ হবে এই মাঠে।

৩. লন্ডনের দ্য ওভাল : প্রায় ২৫ হাজার ৫০০ দর্শক ধারণক্ষমতার স্টেডিয়াম দ্য ওভাল নির্মিত হয়েছিল ১৮৪৫ সালে। তবে ম্যাচ শুরু হয়েছিল ১৮৮০ নালে অস্ট্রেয়িলা ও ইংল্যান্ডের মধ্যেকার ম্যাচ দিয়ে। বর্তমানে দ্য ওভাল স্টেডিয়ামটি কিয়া ওভাল নামেও পরিচিত। কেননা বিজ্ঞাপন শর্তের কারণে এই নামে ডাকা হয় মাঠটিকে। এই মাঠটি বাংলাদেশের জন্য অন্যরকম আবেদন বহন করে। কেননা এই মাঠে বিশ্বের সবগুলো টেস্ট খেলুড়ে দেশ ওয়ানডে ম্যাচ খেললেও বাংলাদেশ এখনো খেলেনি।

প্রথম দুটি মাঠের মতো দ্য ওভালেও বিশ্বকাপের ৫টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের উদ্বোধনী ম্যাচসহ মোট দুটি ম্যাচ এই ভেন্যুতে খেলবে টাইগাররা। ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে এবং ৫ জুন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে এই মাঠে খেলবে টাইগাররা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত