প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাংবাদিক ফাগুনের দাফন সম্পন্ন, শেরপুর প্রেসক্লাবের দুই দিনের কর্মসূচি

তপু সরকার হারুন, শেরপুর প্রতিনিধি : চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাকন রেজার ছেলে, অনলাইন প্রিয় ডটকমের সাব এডিটর ও রাজধানীর তেজগাঁও কলেজের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র ইহসান ইবনে রেজা ফাগুন।

২৩ মে, বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় তেরাবাজার জামিয়া সিদ্দিকীয়া মাদরাসা মাঠে জানাজা শেষে তার মরদেহ বেলা ১২ টায় শেরপুর সদরের চাপাতলি পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়। গতকাল বুধবার জামালপুরের নুরুন্দি থেকে ফাগুনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

২২ মে, বুধবার বিকেল ৩টার পর ফাগুনের বাবা জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক কাকন রেজা এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে বুধবার সকাল ১০টার দিকে ফাগুনের নিখোঁজের সংবাদ জানান কাকন রেজা। এ সময় ছেলে নিখোঁজের বিষয়ে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তিনি।

ফাগুনের বাড়ি শেরপুর জেলা শহরে। তিনি তেজগাঁও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি সাংবাদিকতা করতেন। সর্বশেষ তিনি প্রিয়.কমে সহ-সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন। আরেকটি অনলাইনে তার যোগদানের বিষয়ে কথা চলছিল।

কাকন রেজা জানান,মঙ্গলবার ( ২১ মে ) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফাগুন ঢাকার মহাখালী থেকে শেরপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাসে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। এরপর বেশ কয়েকবার তার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ হয়। সর্বশেষ রাত সাড়ে ৮টায় যোগাযোগের সময় ফাগুন তার বাবাকে জানিয়েছিলেন তিনি ময়মনসিংহের কাছাকাছি অবস্থান করছেন। এরপর ফাগুনের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে ময়মনসিংহ পুলিশ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝির বরাত দিয়ে দুপুরে কাকন রেজা বলেন, ‘ফাগুনের মোবাইল ফোনের অবস্থান শনাক্ত করে দেখা গেছে, তার সর্বশেষ অবস্থান ছিল ময়মনসিংহের একটি গ্রামে। কিন্তু ওই জায়গায় যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।’

বেলা ৩টার দিকে খবর পাওয়া যায়, জামালপুরের নুরুন্দি এলাকা থেকে মঙ্গলবার রাতে একটি মরদেহ উদ্ধার করেছে রেলওয়ে পুলিশ। পরবর্তী সময়ে নিশ্চিত হওয়া যায়, সেটি ফাগুনের মরদেহ।

জামালপুর রেলওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে স্থানীয়রা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। ময়মনসিংহ থেকে কীভাবে জামালপুরে গেলেন ফাগুন, সে বিষয়ে এখনো কিছু বলতে পারেনি পুলিশ।

এছাড়া তড়িঘড়ি করে রেলপুলিশ ফাগুনের লাশ দাফনের উদ্যোগকে সবাই সন্দেহের চোখে দেখছেন। এ বিষয়ে জামালপুর রেলপুলিশ থানার ওসি জানান তারা বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখছেন।

শেরপুর প্রেসক্লাব ফাগুনের হত্যার বিচার দাবিতে দুই দিনের কর্মসূচী নেয়া হয়েছে বলে প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. মেরাজ উদ্দিন জানান। দুই দিনের কর্মসূচীর মধ্যে আছে, শুক্রবার ফাগুনের মাগফিরাত কামনা করে মসজিদে মসজিদে দোয়া, শনিবার বেলা ১১টায় শেরপুর বঙ্গবন্ধু স্কয়ার মোড় (থানার মোড়) মানববন্ধন। প্রেসক্লাবের সভাপতি শরিফুর রহমান জানান, ফাগুন হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত