প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কমিটি দ্বন্দ্বের জেরে বাস মালিক পক্ষের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, পটুয়াখালীর অভ্যন্তরীণ সকল রুটে বন্ধ বাস চলাচল

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে পটুয়াখালী বাস মালিক সমিতির দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৮ জন আহত হয়েছে। মালিক সমিতির দ্বন্দ্ব ও সংর্ঘষের জেরে কুয়াকাটা-পটুয়াখালী-বরিশালসহ অভ্যন্তরীণ সকল রুটের  বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

মঙ্গলবার বিকালে পটুয়াখালী বাস র্টামিনালে এ সংর্ঘষের ঘটনা ঘটলে বাস চলাচল বন্ধের ঘোষণা দেয় পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতি। আহতদের মধ্য ৬ জনকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরবর্তী সহিসংতা এড়াতে পটুয়াখালী বাস টার্মিনালে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য গত সোমবার পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে দূর্নীতিগ্রস্থ উল্লেখ করে স্থানীয় এমপির পুত্রবধূর নেতৃত্বে একটি আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করে মালিকদের একাংশ। অন্যদিকে চলমান কমিটিকে বৈধ দাবী করে মালিক শ্রমিকদের উপর হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বাস মালিক সমিতির সভাপতি রিয়াজ মৃধা।

বাস মালিক, পুলিশ ও শ্রমিকরা জানান, সোমবার পটুয়াখালী বাস মিনিবাস মালিক সমিতির একাংশ মালিক সমিতির সভাপতি মো. রিয়াজ মৃধা ও সাধানরণ সম্পাদক গোলাম মাওলা দুলু মৃধা বিরুদ্ধে দূর্নীতিসহ একাধিক অভিযোগে এনে সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বর্তমান সভাপতি ও সম্পাদক অবৈধ। সমিতির কোটি কোটি টাকা লোপাটসহ নির্দিধায় চাঁদাবাজী চালিয়ে আসছেন তারা। এ নিয়ে মালিকরা একাধিকবার প্রতিবাদ করেও কোন লাভ হয়নি।

এদিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) মো. জসিম উদ্দিন জানান, সংর্ঘষের ঘটনার খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন এবং সবাইবে শান্ত থাকার আহবান করেন। পাশাপাশি যাত্রীদের যেন হয়রানী না হয় সেদিকে নজর রাখতে মালিক পক্ষকে অনুরোধ করেন।

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানান, পটুয়াখালী বাস টার্মিনালে অপ্রীতকর ঘটনা শোনার পরে আমি পুলিশকে অবহিত করে তাদের পাঠিয়েছি। যদি মালিক পক্ষ বাস চলাচল বন্দের ঘোষণা দেয়, তা হলে তাদের সাথে কথা বলে সমাধান করা হবে। যাতে যাত্রীরা কোন প্রকার র্দূভোগের শিকার না হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত