প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুর্ভিক্ষপীড়িত ইয়েমেনে মাদক সমস্যা, ক্ষুধা নিবৃত্তিতে প্রয়োজন ৬০০ কোটি ডলার, মাদকের বাজার ১২০০ কোটি ডলার

আসিফুজ্জামান পৃথিল : সৌদিআরব সমর্থিত সরকার আর হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে চলমান যুদ্ধ আর সহিংসতায় বিদ্ধস্ত হয়ে পড়েছে ইয়েমেন। শুধু যুদ্ধ নয়, ইয়েমেনিরা ভুগছে ভয়াবহ দূর্ভিক্ষে। এই দুভিক্ষ দূর করতে প্রয়োজন মাত্র ৬০০ কোটি ডলার। কিন্তু খাবারের অভাব থাকলেও দেশটিতে বন্ধ নেই ঐতিহ্যবাহী মাদক সেবন। খাট নামের এই মাদকের বাজার দেশটিতে ১ হাজার ২০০ কোটি ডলারের! সিএনএন।

খাট নামের এই মাদক সেবন করে ৯০ শতাংশ ইয়েমেনি পুরুষ আর ৭০ শতাংশ নারী। এই মাদক সেবনে দেশটিতে কোন ট্যাবু নেই। মুখে নিয়ে এই মাদক চিবিয়ে খাওয়া হয়। এই প্রকাশ্যে খাট খেতে লজ্জা পায় না। এই মাদকে রয়েছে অ্যঅম্ফিটামিন। এটি খেতে কলার ছোকলার মতো লাগে। ২০০৮ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিলো ১৫-২০ শতাংশ ইয়েমেনি শিশু খাট সেবনে অভ্যস্থ। দেশটির কৃষিখাতেও এর প্রভাব পড়েছে। সর্বগ্রাসী খাট দেশের কফি, গম এবং অন্যান্য ফসলী জমিগুলো দখল করে নিয়েছে। কৃষি মন্ত্রনালয় জানিয়েছে এক তৃতিয়াংশ কৃষি জমিই এই মাদকের দখলে। তবে বেসরকারি জরিপগুলো বলছে সরকার প্রকৃত চিত্র উপস্থাপন করে না। জাতিসংঘ বলছে প্রকৃতপক্ষে দেশটির ৬০ শতাংশ কৃষি জমিই খাতের দখলে। ফলে কৃষি উৎপাদন কমছে। আর খাদ্যের অভাবে মারা যাচ্ছে শিশুরা।

রাজধানী সানায় চাইলেই কিনতে পাওয়া যায় খাট। ছোটছোট গোলাপী ব্যাগে করে বিক্রি হয় এই মাদক। একজন খাতসেবি দিনে ২৫ হাজার ইয়েমেনি রিয়াল বা ৫০ মার্কিন ডলার পর্যন্ত থাটের পেছনে ব্যয় করে থাকে। সবচেয়ে কম দামি খাটের পেছনেও ব্যয় করতে হয় ৫ ডলার। দেশটির জনগন খাটের পেছনে বিপুল ব্যয় করছে। অথচ খাদ্যের পেছনে এর অর্ধেক ব্যয় করলে বেঁচে যেতো হাজারো শিশুর প্রাণ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত