প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নামকরা দুগ্ধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর দুধে যে পরিমাণ ক্ষতিকর উপাদান পাওয়া গেছে তাতে গা শিউরে ওঠার মতো : হাইকোর্ট

মহসীন কবির : নামকরা দুগ্ধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর গুলোর দুধে যে পরিমাণ ক্ষতিকর উপাদান পাওয়া গেছে তাকে গা শিউরে ওঠার মতো । মঙ্গলবার সকালে বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ কথা বলেন। রিপোর্ট পাওয়ার পরও দুধে সীসা পরীক্ষা না করানোয় বিএসটিআইএর কার্যক্রমে অসেন্তাষ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট।

ঢাকাসহ সারাদেশের বাজারে পাস্তুরিত (তরল) দুধ পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিএসটিআই, নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্টদের এ পরীক্ষা করতে বলা হয়েছে। সরকারি প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির (এনএফএসএল) প্রধান প্রফেসর ড. শাহনীলা ফেরদৌসি হাইকোর্টে দুধ পরীক্ষার প্রক্রিয়া জানানোর পর বিচারকরা এ নির্দেশ দেন।

জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির (এনএফএসএল) গবেষণায় গাভীর দুধে সহনীয় মাত্রার চেয়ে বেশি কীটনাশক ও নানা ধরনের অ্যান্টিবায়োটিকের উপাদান পাওয়া সংক্রান্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির ডা. শাহনীলা ফেরদৌস।

ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির প্রধান অধ্যাপক শাহনীলা ফেরদৌসি হাইকোর্টকে জানান, নির্ধারিত সময়ে দুধে সীসা থাকার প্রতিবেদন নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। জানান, দুধ এবং দইয়ের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ঢাকা এবং এর আশপাশের এলাকা থেকে।

এদিকে কোন কোন প্রতিষ্ঠানের দুধে মাত্রাতিরিক্ত সীসা আছে তা জানতে চেয়ে বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত