প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারীশক্তিতে ভর করে গণতন্ত্রের স্বপ্ন দেখছে সুদান

আসিফুজ্জামান পৃথিল : জনতার জাগরণে পতন হয়েছে সুদানের দীর্ঘদিনের স্বৈরশাষক ওমর আল বশিরের। এরপর ক্ষমতা গ্রহণ করেছে সেনাবাহিনী। জনগন এবার গণতন্ত্রের পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়ানো সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছে। এই আন্দোলনের সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন নারীরা। এই আন্দোলনে এতোই গভীর তাদের ভূমিকা যে, এই নারীদের তুলনা করা হচ্ছে নুবিয়ান সিংহের সঙ্গে। অথচ কয়েক মাস আগে শরীয়া আইনের বদৌলতে এই নারীরা ছিলেন কার্যত বন্দী। অথচ আজ তারাই সাধারণ সুদানিদের আশা ভরসার প্রতীক। আরব নিউজ, এনপিআর, ওয়াশিংটন পোস্ট, ডয়েচে ভেলে।

গত বছরের ডিসেম্বরেই বশিরের পদত্যাগের দাবিতে রাস্তায় নামে সুদানিরা। খার্তুমের রা স্তায় থাকবে পুরুষদের প্রভাব, সুদান সম্পর্কে সামান্যতম জ্ঞান রাখা ব্যক্তিমাত্রই এমনটাই ভেবেছিলেন। কিন্তু তা হয়নি। সুদানের আন্দোলনে পাদপ্রদীপের আলোতে ছিলেন এক নারী। আলা সালেহ সবার কাছে পরিচিত হয়ে উঠেন নুবিয়ান কুইন বা নুবিয়ার রানি নামে। এপ্রিলে বশিরের অপসারনের পর আন্দোলন শুরু হয় বেসামরিক সরকারের দাবিতে। এই বিক্ষোভকারীদের দুই তৃতিয়াংশই নারী। তারা মনে করেন তাদের ছাড়া এই আএন্দালন কখনই পরিপূর্ণতা পেতোনা। আন্দোলনকারীদের একজন সুদানিজ প্রফেশনাল অ্যাসোসিয়েশনের সারা আব্দুলাজিজ।

তিনি বলেন, ‘নারীরাও মারা যাচ্ছে। তারা বিক্ষোভের মদ্যভাগে থাকছে। তাদের আটক করা হচ্ছে, গ্রেফতার করা হচ্ছে। সাফল্যের অধিকাংশ ভাগিদার তারাই।’

বশিরের আমলে সুদানে নারীকে বন্দী করার চেষ্টা ছিলো। এক্ষেত্রে দেওয়া হতো ধর্মের দোহাই। তবে সুদানি নারীদের বন্দী করাটা সহজ ছিলোনা। ঐতিহ্যগতভাবেই তারা প্রতিবাদী এবং রাজনৈতিকমনা। সুদানি নারীরা সবসময়েই পরিচিত ছিলেন নুবিয়ান সিংহী নামে। এবার তারা নিজেরাই নিজেদের যোগ্যতায় তা প্রমাণ করছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত