প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

আলীকদমে প্রতিবন্ধী তঞ্চঙ্গ্যা যুবতীকে পালাক্রমে ধর্ষণের পর হত্যা, ৩ জন গ্রেফতার, আদালতে স্বীকারোক্তি

নুরুল করিম, লামা প্রতিনিধি : অবশেষে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার প্রতিবন্ধী তঞ্চঙ্গ্যা যুবতী লাকাচিং হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করেছে পুলিশ। এ পর্যন্ত ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো- ত্রিমথীয় ত্রিপুরা (২৫), জয়কুমার তঞ্চঙ্গ্যা (৩৮) ও জন ত্রিপুরা (৪৩)। লাকাচিং তঞ্চঙ্গ্যাকে পালাক্রমে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যা করে গলায় গামছা পেছিয়ে গাছের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছিল মর্মে বলে বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে গ্রেফতারকৃতরা। শুক্রবার বিকালে আলীকদম থানায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিক উল্লাহ। এ সময় মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) কানন চৌধুরী ও উপ-পরিদর্শক নুর ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিক উল্লাহ বলেন, উপজেলার আমতলী এলাকার আশ্রায়ন প্রকল্পের বাসিন্দা ছিলেন প্রতিবন্ধী যুবতী লাকাচিং তঞ্চঙ্গ্যা (৩২)। তার পিতার নাম মৃত কৃত্তমন তঞ্চঙ্গ্যা। ২০১৮ সালের ২৫ নভেম্বর অসতি ত্রিপুরা পাড়ায় একটি গাছের সঙ্গে গামছা পেছানো অবস্থায় প্রতিবন্ধী এ যুবতীর লাশ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। এ ঘটনায় আলীকদম থানায় অপমৃত্যু মামলা রুজু হয় (অপমৃত্যু মামলা নং-৭ তারিখ- ২৫/১১/২০১৮)। পরবর্তীতে লাশের ময়না তদন্ত শেষে বান্দরবানের সিভিল সার্জন ও ময়না তদন্তকারী ডাক্তার অংসুই প্রু মারমা ‘যৌন নির্যাতন করে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে’ মর্মে মতামত প্রদান করেন। পরে হত্যাকাণ্ডের শিকার যুবতীর নিকটাত্মীয় ক্যনুমং তংচংগ্যা অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে গত ১৫ এপ্রিল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা রুজু করেন। মামলাটির তদন্তভার পান ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) কানন চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে ওসি রফিক উল্লাহ আরো বলেন, তদন্তকারী কর্মকর্তা কানন চৌধুরী বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন। এ ধারাবাহিকতায় ঘটনা সংঘঠিত হওয়ার ছয়মাস পর মূল রহস্য উদ্ঘাটন করে ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। আসামিরা আশ্রয়ণ প্রকল্প ও অসতি ত্রিপুরা পাড়ার বাসিন্দা। তদন্ত কর্মকর্তার দাবি, ধৃত আসামিরা পূর্ব থেকেই লাক্যচিংকে ধর্ষণ করার পরিকল্পনা করেছিল। প্রাথমিক অবস্থায় ঘটনার কোন তথ্য প্রমাণ ছিলো না। তদন্তকালে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে ঘটনার মূল রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত