প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

বৃষ্টির পর সৌম্য-মোসাদ্দেক ঝড়ে ধরা দিলো শিরোপা

আক্তারুজ্জামান : এভাবেও ম্যাচ জেতা যায়! এভাবেও শিরোপার স্বাদ নেয়া যায়! ছয়-ছয়বার ফাইনালে হেরে ভেঙেছিল শিরোপাস্বপ্ন। কেঁদেছিল বাংলাদেশ। একটি শিরোপার জন্য ক্ষুধার্ত বাঘের মতো দলের প্রতিটা ক্রিকেটার অপেক্ষায় ছিলেন। সেই ক্ষুধার্ত বাঘ তাদের রূপটা ভালোভাবেই দেখিয়েছে। সপ্তম ফাইনালে এসে অসাধ্য সাধন করে শিরোপার স্বাদ নিয়েছে টাইগাররা। আবার এমনদিনই শিরোপা জিতলো যেদিন বাংলাদেশ তাদের ইতিহাসে প্রথম ওয়ানডে জয় পেয়েছিল। ১৯৯৮ সালে কেনিয়াকে হারিয়ে প্রথম জয়োল্লাস করার ২১ বছরের মাথায় শিরোপাও ঘরে তুললো বাংলাদেশ।

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ। বৃষ্টি আইনে পাওয়া ২১০ রানের লক্ষ্য সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেকের ঝড়ে মামুলি বানিয়ে ৭ বল ও ৫ উইকেট বাকি থাকতেই ছুঁয়ে ফেলে লাল-সবুজ বাহিনী। ফলে বিশ্বকাপের আগেই শিরোপা জয়ের উল্লাসে মাতে স্টিভ রোডসের শিষ্যরা।

২১০ রানের পহাড়সম লক্ষ্যে খেলতে নেমে একবারও বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে ছিটকে যেতে হয়নি। সৌম্য-তামিম জুটিতে গড়া ভিত আর মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেকের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে কোন ঝুঁকি ছাড়াই লক্ষ্যে পৌছে যায় মাশরাফি বাহিনী। সৌম্য ৪১ বলে ৬৬, মুশফিক ২২ বলে ৩৬ এবং মোসাদ্দেক ম্যাচ জেতানো ২৪ বলে ৫৩ রানের ইনিংস খেলেন।

এর আগে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ডাবলিনের মাঠে বৃষ্টি বাগড়ায় কয়েক ঘণ্টা খেলা বন্ধ ছিল। এক সময় মনেই হয়েছিল ম্যাচটি মনে হয় আর মাঠে গড়াবে না। যেটা বাংলাদেশের জন্য সুখবর ছিল। কেননা ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেই গ্রুপ পর্বের পয়েন্টে এগিয়ে থাকায় শিরোপা জিততো বাংলাদেশই। কিন্তু কয়েকঘণ্টা পর বৃষ্টি থামলে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমিয়ে ২৪ ওভারে নামিয়ে আনা হয়। নির্ধারিত ২৪ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান তোলে। আর বৃষ্টি আইনে ২১০ রানের লক্ষ্য পায় টাইগাররা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত