প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

মিয়ানমার জেনারেলদের নিঃসঙ্গ করার পরিকল্পনা জাতিসঙ্ঘের

সাজিয়া আক্তার : মিয়ানমারের শীর্ষ জেনারেলদের গণহত্যার জন্য বিচার করার চলমান প্রয়াস সত্তে¡ও দেশটির সামরিক বাহিনীর সাথে ব্যবসায় সম্পৃক্ত বহুজাতিক কোম্পানিগুলো সম্পর্ক ছিন্ন করার আহ্বানে এখন পর্যন্ত সাড়া দিচ্ছে না। সাউথ এশিয়া মনিটর
তবে এখন জাতিসঙ্ঘ তদন্তকারীরা চাপ বাড়াচ্ছে, দেশটির সামরিক বাহিনীকে নিঃসঙ্গ করতে চাচ্ছে।

জাতিসঙ্ঘ তদন্ত কমিশনের চেয়ারপারসন মারজুকি দারুসম্যান ২০১৭ সালের সহিংসতার তদন্ত করছেন। তিনি বলেন, সামরিক বাহিনীকে নিঃসঙ্গ করা খুবই জরুরি। কারণ দেশটিতে ব্যাপক মাত্রায় মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে মিয়ানমারের নেতৃত্ব সামান্যই কাজ করেছে।

তিনি ১০ দিনের সফর (এতে বাংলাদেশও ছিল) শেষ করে বলেন, পরিস্থিতি এখন পুরোপুরি স্থবির হয়ে আছে।
তদন্ত মিশন আশা করছে জেনারেলদের পকেট ভারি করার কাজটি অবসান ঘটাতে অন্যান্য দেশ তাদের সহায়তা করবে।
গত বছর প্রেসার গ্রুপ বার্মা ক্যাম্পেইন ইউকে ৪৯টি বিদেশী কোম্পানির নাম প্রকাশ করে জানায়, এরা সামরিক বাহিনীর সাথে ব্যবসা করে কিংবা মিয়ানমারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের সাথে জড়িত।

ধারণা করা হয়ে থাকে, মিয়ানমার সামরিক বাহিনী হিসাব-বহির্ভ‚তভাবে দুটি সংস্থা মিয়ানমার ইকোনমিক করপোরেশন (এমইসি) ও ইউনিয়ন অব ইকোনমিক হোল্ডিংস (ইউএমইএইচ) থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ পেয়ে থাকে।

২০১৭ সালের গণহত্যার পর কয়েকটি কোম্পানি বিরত থাকলেও কয়েকটি কোম্পানি বড় বড় চুক্তি করেছে। ভারতের আদানি গ্রুপ সম্প্রতি এমইসির সাথে একটি কন্টেইনার বন্দর উন্নয়নের জন্য ২৯০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি করেছে।
তবে জেনারেলদের বিচ্ছিন্ন করার কাজে বাধা হতে পারে চীন ও রাশিয়া।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত