প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাতীয়তাবাদী দল আর জাতীয়তবাদ এক নয়

শিমুল মাহমুদ : সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ’র স্মৃতি চারণ করে নিউ এইজ পত্রিকার সম্পাদক নুরুল কবীর বলেছেন, বেশকিছু হতাশা নিয়ে মাহফুজ উল্লাহ আমাদের ছেড়ে গেছেন। জাতীয়তাবাদী দলের যে অর্থনৈতিক কর্মসূচি, জাতীয়তাবাদের দর্শন, সংস্কৃতির যে বহিঃপ্রকাশ আছে কিনা এবং তার সূত্র কে মিত্র কে? এ জিনিসগুলো কি পরিষ্কার আছে?

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহর স্মরণে আয়োজিত এক নাগরিক শোক সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

নূরুল কবির বলেন, একটা পার্লামেন্ট প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ভোট ছাড়া, সংসদ ঘটিত হবার পর যখন সংসদ প্রতিনিধিদের এস পি সাহেবদের কাছে শুনতে হয় এমপি সাহেব আমি আপনাকে এমপি বানিয়েছি, আমাকে নির্দেশ দিবেন না। আপনি আমাকে এমপি বানান নাই। এ রকম একটা সময়ে জাতির রাষ্ট্র গঠনের জন্য জাতীয়বাদী দলের কর্মসূচিটা কি?

জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব বলেন, একটা পাথরময় সময় আমরা অতিক্রম করছি। দেশে কোনো রাজনীতি নেই, মানুষের কথা বলার অধিকার নেই। শুধু জনগণ নয়, এই সমাজে যাদের বিবেক কাজ করে তাদের বেচে থাকা সম্ভব নয়, বাচাও সম্ভব নয়। শুধু নেতারা না আমরা কেউ বাঁচবো না।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সৃষ্টিতে ছিলো ঐক্য, গণতন্ত্র ঐক্য ছাড়া হবে না। স্বৈরাশাসনের বিদায় ঐক্য ছাড়া হবে না। জনগণের ঐক্য কোনো ব্যক্তি বা দলের নয়। জনগণের আকাঙ্খার বহিঃপ্রকাশ হলো ঐক্য।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন বলেন, স্বাধীন সাংবাদিকতা আর নেই। যেখানে ভোটাধিকার থাকে না সেখানে কথা বলার স্বাধীনতা থাকে না। পেশাজীবী আইনজীবী, আর সাংবাদিকরা যদি দলীয় কর্মী না হতেন তাহলে বাংলাদেশের ইতিহাস অন্যরকম হতো।

রাশেদ খান মেনন বলেন, মাহফুজ উল্লাহ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিলো। সাংবাদিক হিসেবে তিনি পরিবেশ সাংবাদিকতার বেছে নিয়েছিলেন। অন্য সবকিছুকে বাদ দিয়েও আমি তাকে বলি, সে ছিল একজন বরেণ্য সাংবাদিক।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত