প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মহাকাশে বর্ষপূর্তি করলো দেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ হিসাব নিকাশের এক বছর

কামরুল হাসান : বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উপক্ষেপণের এক বছর পূর্ণ হলো আজ। গত বছরের এই দিনে (বাংলাদেশ সময় ১২ মে রাত ২.১৪ মিনিটে এবং যুক্তরাষ্ট্র সময় ১১ মে) যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের কেপ ক্যানাভেরাল লঞ্চপ্যাড থেকে মহাকাশপানে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। মহাকাশে গত এক বছরের পদচারনায় যেমন কাটলো বাণিজ্যিক এ যোগাযোগ স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১!

বাণিজ্যিক যাত্রায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সফলতা সম্পর্কে বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, স্যাটেলাইট যাত্রার এক বছর হলেও আমরা বুঝে পেয়েছি গত নভেম্বরে। এর আগে এটি ছিল ফ্রান্সের থ্যালাস এলিনিয়া স্পেসের নিয়ন্ত্রণে। তারা গাজীপুরে গ্রাউন্ড স্টেশনে আমাদের ঢুকতেই দেয়নি।

শাহজাহান মাহমুদ বলেন, আমরা হাতে পাওয়ার পর থাইল্যান্ডসহ এশিয়ার বাজার ধরতে অনেক দেশে পরামর্শক নিয়োগ দিয়েছি। ইতিমধ্যে আমাদের স্যাটেলাইট ব্যবহারের জন্য ফিলিপাইন সরকার চুক্তি করেছে এবং যোগাযোগ শুরু করেছে থাইল্যান্ড ও নেপাল। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে নৌ-পরিবহন, মৎস্য অধিদফতর এবং কৃষি বিভাগসহ ৩০টির বেশি স্থানীয় সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বিএসসিসিএলের সঙ্গে চুক্তি করেছে।

ড. শাহজাহান মাহমুদ জানান, আমরা ১৯ মে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের প্রতিষ্ঠাবার্ষীকি পালন করবো, সে দিন থেকেই দেশের সবগুলো টিভি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচার কার্যক্রম শুরু করবে। এ ব্যাপারে প্রস্তুতি চূড়ান্ত হয়েছে। টিভি চ্যানেলগুলো আগে যে দামে ব্যান্ডউইথ কিনত এখন আমাদেও কাছ থেকেও সেই দামেই নেবে। প্রতি মেগাহার্ডজ দুই হাজার ডলার করেই পরিশোধ করবে তারা। প্রতিটি টিভি চ্যানেলের ৪ থেকে ৬ মেগাহার্ডজ লাগে। তাদের কাছ থেকে ৮ থেকে ১২ হাজার ডলার করে পাওয়া যাবে।

শাহজাহান মাহমুদ আরো বলেন, ব্যাংকের এটিএম বুথ আর অনলাইনে অর্থ লেনদেন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর আওতায় আনতে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আগামী ১৯ মে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের একটি বুথ এই স্যাটেলাইটের ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করে পরীক্ষামূলকভাবে চালানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে এর পরীক্ষামূলক কাজও শেষ হয়েছে। এরপর পর্যায়ক্রমে সবগুলো এটিএম বুথ কোনো ধরনের ব্রডব্যান্ড সংযোগ ছাড়াই এই স্যাটেলাইটের আওতায় আনা হবে। এতে সাইবার অপরাধও কমে যাবে।

এর আগে, জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর স্বত্ব (মালিকানা) দেয়া প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের (বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের স্বত্ব শুধু বেক্সিমকো ও অন্য একটি কোম্পানির কাছে বিক্রি করা হয়েছে) জবাবে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর স্বত্ব (মালিকানা) কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হয়নি, এটি দেশের জনগণের সম্পত্তি। সে কারণে স্যাটেলাইটের স্বত্ব নিয়ে যেসব কোম্পানি বা ব্যক্তিবর্গের নামে লিজ দেয়ার তথ্য খবরের কাগজ বা গণমাধ্যমে আসে, তা সত্য নয়।

এদিকে সব মিলিয়ে বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণে খরচ হয়েছে ২ হাজার ৭৬৫ কোটি টাকা। আগামী সাত বছরের মধ্যে এই খরচ উঠে আসবে বলে মনে করেন উৎক্ষেপণকারী সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (বিটিআরসি)।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত