প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যে অর্থনৈতিক উন্নয়ন চিন্তায় আমরা ব্যতিব্যস্ত, শত বছর পূর্বেই রবীন্দ্রনাথ তা চিহ্নিত করেছিলেন, বললেন ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

মঈন মোশাররফ : অর্থনীতিবিদ ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, কবিগুরু প্রচলিত অর্থে অর্থনীতিবিদ ছিলেন না। ছিলো না তার এ ক্ষেত্রে কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা। তবে তার ছিলো একটি সৃষ্টিশীল পারিবারিক পরিবেশ, ছিলো তার ব্যাপক পাঠাভ্যাস। দেশের গ্রামীণ জীবনকে প্রত্যক্ষ করেছেন কাছ থেকে, লক্ষ্য করেছেন ঔপনিবেশিক শাসন কীভাবে জাতীয় অর্থনৈতিক বিকাশকে শৃঙ্খলিত করে। একই সাথে প্রাচ্য-প্রতীচ্যের সমাজ ও সভ্যতাকে পর্যালোচনা করেছেন গঠনমূলক দৃষ্টিতে। তাই তার বিস্তৃত রচনাবলি গভীরভাবে পাঠ করলে আমরা লক্ষ্য করি সাম্প্রতিকালে যেসব অর্থনৈতিক উন্নয়ন চিন্তা আমাদের ব্যস্ত রাখছে, তার বহুু পূর্বে রবিঠাকুরের মনোযোগ লাভ করেছিলো প্রায় শত বছর। সিপিডির ফেসবুক পেজ

তিনি আরো বলেন, কবিগুরুর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন চিন্তার সূচনাবিন্দুটি ছিলো দেশপ্রেম। সেই দেশপ্রেম তার জন্য কোনো বায়বীয় বিষয় ছিলো না। তার জন্য, ‘দেশকে ভালবাসিবার প্রথম লক্ষণ ও প্রথম কর্তব্য দেশকে জানা। তিনি আরও বলেছেন, ‘দেশে জন্মালেই দেশ আপন হয় না। যতক্ষণ দেশকে না জানি ততক্ষণ সে দেশ আপনার নয়। সমাজ ও অর্থনীতির বস্তুগত ও প্রাতিষ্ঠানিক ভিতকে জানা বা বোঝার ওপর পেশাদার অর্থনীতিবিদরা যে গুরুত্ব আরোপ করে থাকেন, সেটার কথাই এখানে বলা হয়েছে। দেশজ বৈশিষ্ট্যকে অনুধাবন করতে না পারলে যে সঠিক আর্থ-সামাজিক নীতি প্রণয়ন করা যায় না, তাই বোধহয় রবীন্দ্রনাথ বোঝাতে চেয়েছেন। তবে তার এই স্বদেশ চিন্তার মধ্যে মানবতাবোধই প্রধান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত