প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উইঘুরের মুসলিম নারীদের অস্বাভাবিক জীবনে অভ্যস্ত করে তুলছে চীনারা

লিউনা হক: তিন বছর আগে উধাও হওয়া এক উইঘুর নারী অনেক ধকল ও খেসারতের পর এবার ছাড়া পেয়েছেন। ইসলামী উগ্রপন্থার মোকাবিলায় চীনা ধরপাকড় অভিযানে তাকে আটক করা হয়েছে। এএফপি, ইয়ন

পশ্চিমাঞ্চলীয় চীনা প্রদেশ জিনজিয়াংয়ের ৪০ উইঘুর নারী, যারা প্রতিবেশী মুসলিম দেশ পাকিস্তানের ব্যবসায়ীদের বিয়ে করেছেন।
চীনের অন্তরীণ ক্যাম্পে ইসলামে নিষিদ্ধ এমন কার্যক্রমে বাধ্য করার জন্যই মুসলিম নারীদের আটক রাখা হয়।

সম্প্রতি জিনজিয়াংয়ে নিজের স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পাকিস্তানী ব্যবসায়ী বলেন, ক্যাম্পে তাদের শকুরের মাংস ও এলকোহল খেতে বাধ্য করা হচ্ছে। এমনকি ক্যাম্পে তাকে কোরআন ও নামাজ পড়তে নিষেধ করা হয়েছে, তার বদলে ঘরে বিভিন্ন চীনা বই রাখতে হচ্ছে।

জিনজিয়াং সীমান্তের পাকিস্তানি ভূখন্ড গিলজিত-বালচিস্তান সরকারের মুখপাত্র ফাইজ উল্লাহ্ ফারাক বলেন, আটক পাকিস্তানী ব্যবসায়ীদের উইঘুর স্ত্রীরা অনেকেই ছাড়া পেয়েছেন।

ভুক্তভোগীর স্বজনরা বলছেন, ক্যাম্প থেকে ছাড়া পাবার পর তাদের প্রাণপ্রিয় স্ত্রী ও মায়েদের দেখতে একেবারে অদ্ভুত লাগছে।

এক ব্যবসায়ী স্বামী তার স্ত্রী সম্পর্কে বলেন, সে একসময় নিয়মিত নামাজ পড়ত, কিন্তু এখন সেই অভ্যাস নাই। মাঝে মাঝে রেস্তোরায় গিয়ে সে মদ খাচ্ছে। সবচেয়ে খারাপ দিকটি হচ্ছে তার নীরবতা। সে সবাইকে সন্দেহ করছে, তার মা-বাবাসহ পরিবারের সবাইকে এমনকি আমাকেও।

ক্যাম্প থেকে ছাড়া পাওয়ার পর অনেক নারীই মানসিক বৈকল্যে ভুগছেন এবং তাদের জীবন ও সংসার নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে আছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত