প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২২তম বিএসএমএমইউ দিবস পালিত
চিকিৎসা সেবা, শিক্ষা ও গবেষণাকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার অঙ্গীকার

স্বপ্না চক্রবর্তী : চিকিৎসা সেবা, শিক্ষা ও গবেষণাকে আন্তর্জাতিক মানের উন্নীত করার অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২তম বিশ্ববিদ্যালয় পালিত হয়েছে।

নানা আয়োজনে দেশের প্রথম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দিনটি পালন করা হয় মঙ্গলবার। দিবসটি উপলক্ষে সকাল ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডা. কনক কান্তি বড়–য়ার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর ম্যূরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন, পায়রা ও বেলুন উড়ানো ছাড়াও একটি বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। পরে একটি বৈজ্ঞানিক অধিবেশন, আলোচনা সভা এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ডা. মিলন হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য অধ্যাপক ডা. এম এ কাদেরীকে উৎসর্গ করে “বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জনসমূহ ও স্বপ্ন” শীর্ষক বৈজ্ঞানিক অধিবেশনটি অনুষ্ঠিত হয়। একই স্থানে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ মুরাদ হাসান এমপি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. আ. ফ. ম. রুহুল হক এমপি, কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, কিছু দিনের মধ্যেই ৫০০০ চিকিৎসক নিয়োগ করা হবে। চিকিৎসকদের কর্মস্থলে উপস্থিত থাকাটা জরুরি। কর্মস্থলে উপস্থিত না থাকলে দুর্নাম হয়। বাংলাদেশের চিকিৎসাসেবাকে এমন জায়গায় নিয়ে যেতে হবে যাতে করে রোগীরা আর দেশের বাইরে না যায়, বরং বিদেশ থেকে রোগীরা বাংলাদেশে চিকিৎসাসেবা নিতে আসতে উদ্ধুদ্ধ হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত