প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মৃত্যুর পর পেলেন সেই ‘পদ্মশ্রী’!

মুসফিরাহ হাবীব : বড়ই ক্ষোভ নিয়ে চলে গিয়েছিলেন বলিউডের বরেণ্য অভিনেতা কাদের খান- তার মৃত্যুর পর শোনা গেছে এমন কথাই। কিন্তু যে ক্ষোভ নিয়ে তিনি চলে গেছেন শেষ পর্যন্ত তা-ই দেওয়া হল তার মৃত্যুর পর।

কাদের খানের মৃত্যুর কয়েক বছর আগেই জানা গিয়েছিল ‘পদ্মশ্রী’ সম্মাননার জন্য তার নাম বিবেচনায় থাকার কথা। সে সময় কাদের খানের অসুস্থতা বাড়ছিল। তাই আগ্রহীরা চেয়েছিলেন, কাদের খানের জীবদ্দশায় যেন তাকে এই রাষ্ট্রীয় সম্মান দেওয়া হয়। খবর পেয়েছিলেন কাদের খানও।

তখন তিনি বলেছিলেন, “সরকার যদি মনে করে এ সম্মান পাওয়ার মত কাজ আমি করেছি, তাহলে আমি তা পেতে পারি। তবে আমাকে যেন এই সম্মান দেওয়া হয়, এর জন্য এত মানুষ সরকারকে অনুরোধ করেছেন, তদের ভালোবাসায় আমি মুগ্ধ।”

কিন্তু শেষ পর্যন্ত ‘পদ্মশ্রী’ পাননি কাদের খান। এরপর ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে শেষ এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘খুব ভালো কথা যে আমি পদ্মশ্রী পাইনি। তবে তিনি আঙুল তুলেছিলেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ‘সততা’র দিকে।

বলেছিলেন, “পুরস্কার জীবনে বড় কথা নয়। কিন্তু কাদের পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে, সেটা বড় কথা। আগে এ ধরনের পুরস্কারের জন্য প্রাপকদের বাছাই করা হত সততার সঙ্গে। কিন্তু সেই দিন আর নেই। মানুষ এখন খুব বেশি স্বার্থপর। ঠিকমতো সম্মান দিতেও ভুলে গেছে। এখন যে অভিনেতাদের পদ্মশ্রী দেওয়া হচ্ছে, তাদের দিলে আমার আর দরকার নেই।”

এবার মৃত্যুর পর কাদের খানকে মরণোত্তর ‘পদ্মশ্রী’ সম্মানে ভূষিত করা হয়েছে। ৭০তম প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে গত ২৫ জানুয়ারি এই সম্মান প্রাপকদের তালিকা ঘোষণা করেন রাষ্ট্রপতি। কিন্তু তখন এ সম্মাননা নিতে কাদের খানের পরিবার থেকে কেউ ভারতে যাননি। তবে পরে কানাডায় কাদের খানের ছেলে সরফরাজ খানের হাতে এ সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ৮১ বছর বয়সে কানাডার টরন্টোতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন কাদের খান। এ সময় তার মনে ছিল অনেক কষ্ট। মৃত্যুর পর তার মরদেহ মুম্বাই আনতে চায়নি তার পরিবার। তাকে দাফন করা হয়েছে টরন্টোর এক কবরস্থানে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত