প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তারেক রহমানের নির্দেশেই শপথ!

প্রভাষ আমিন: উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের এক আসরে একে একে সব শ্রোতা চলে গেছেন। একজন মাত্র শ্রোতা বসেছিলেন। আসর শেষে শিল্পী গিয়ে সেই একমাত্র শ্রোতাকে জড়িয়ে ধরলেন, ‘আপনার মত এমন সমঝদার শ্রোতাই আমাদের অনুপ্রেরণা।’

সেই শ্রোতা বিরক্ত হয়ে বললেন, আপনার গানের টানে বসে থাকিনি। আপনি যে চাদরে বসে গাইছিলেন, সেটি আমার। দিয়ে দেন চলে যাই। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অবস্থা হয়েছে সেই একমাত্র শ্রোতার মতো। একে একে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের সাত এমপিই শপথ নিয়ে নিলেন। মির্জা ফখরুল একাই রয়ে গেলেন বিএনপির চাদরের আশায়।

গত ২৫ এপ্রিল ঠাকুরগাঁও থেকে নির্বাচিত বিএনপির সাংসদ জাহিদুর রহমান জাহিদ শপথ নেওয়ার পর এই কলামে আমি লিখেছিলাম- ‘বিএনপি সাংসদ জাহিদুর রহমান জাহিদের শপথের পর গত ২৫ এপ্রিল লিখেছিলাম, ‘এখন আমার শঙ্কা মির্জা ফখরুল ছাড়া বাকি চারজনও ৩০ এপ্রিলের মধ্যেই শপথ নিয়ে সংসদে যাবেন। মির্জা ফখরুল হয়তো সেই উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত আসরের শ্রোতার মতো পাটির আশায় শেষ পর্যন্ত বসে থাকবেন। বিএনপির মতো একটা বড় ও জনপ্রিয় দলের এই দুরবস্থা আমাকে বেদনাহত করেছে।’ মির্জা ফখরুলকে একা হতে দেখে, সেই বেদনাটা আবার বোধ করছি।

গত ২৫ এপ্রিল দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ নেওয়ার অপরাধে বিএনপি জাহিদুর রহমান জাহিদকে বহিষ্কারও করেছিল। কিন্তু আজ বাকি চার সাংসদ যখন শপথ নিতে গেলেন, তখন তিনিও তাদের সাথেই ছিলেন। তার মানে বিএনপি তাকে ছাড়লেও, তিনি বিএনপিকে ছাড়েননি। তবে শপথ নিতে এসে বোমা ফাটিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও চাঁপাইনবাগঞ্জ থেকে নির্বাচিত সাংসদ হারুনুর রশিদ। তিনি বলেছেন, দলীয় সিদ্ধান্তে এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের নির্দেশেই তারা শপথ নিচ্ছেন।

এখন আমার কৌতূহল- দলীয় সিদ্ধান্তটা কখন হলো? সর্বশেষ স্থায়ী কমিটির বৈঠকেও তো শপথ না নেওয়ার সিদ্ধান্তই বহাল ছিল। তাহলে শপথের সিদ্ধান্ত কোথায় হলো? হারুনুর রশিদের কথা সত্য হলে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্ত পাল্টে শপথের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। কিন্তু আনেকটি কৌতূহল, তারেক রহমানের নির্দেশ কি মির্জা ফখরুল পাননি? পেলে তাকে বাদ দিয়ে বাকিরা শপথ নিলেন কেন?

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, তারেক রহমানের নির্দেশ সবার জন্যই প্রযোজ্য, মহাসচিবের জন্যও। তাহলে? তিনদিন আগে জাহিদুর রহমানের শপথের পর গয়েশ্বর বলেছিলেন, থুথুর বন্যায় তিনি ভেসে যাবেন। এখন যে দলের তারেক রহমানের সিদ্ধান্তেই সবাই শপথ নিলেন। গয়েশ্বরের ঘৃণা কি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের জন্যও প্রয়োজ্য হবে?

পরিচিতি: হেড অব নিউজ, এটিএন নিউজ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত