প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারী উদ্যোক্তাদের সহজে ঋণ পেতে সর্বোচ্চ সহযোগীতার কথা জানালেন মেয়র আতিকুল

সুজন কৈরী : রাজধানীতে ব্যবসা পরিচালনাকারী নারী উদ্যোক্তাদের সমাজে প্রতিষ্ঠিত হতে সহজে ঋণ পেতে সর্বোচ্চ সহযোগীতা করা হবে একইসাথে অনলাইনে ব্যবসা পরিচালনাকারী নারী উদ্যোক্তাদেরকে সাইবার সিকিউরিটি প্রদানে ডিএনসিসি বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো: আতিকুল ইসলাম। এছাড়া ডিএনসিসি সীমনায় বসবাসকারী নারীদেরকে নিয়ে নারী উদ্যোক্তা তৈরী করতে ও নারীদেরকে পরিবারে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে নারী উদ্যোক্তা সম্মেলন করারও ঘোষণা দেন মেয়র। শুধূমাত্র নারীদেরকে স্বামী সন্তান ভাই বা অন্যের উপরে ভরসা করে জীবন পরিচালনা বন্ধ করে নারীদেরকে স্বাধীন মানুষ হিসেবে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতেই এই প্রশিক্ষণ প্রদান ও নারী সম্মেলন করা হবে বলে।

সোমবার রাজধানীর খামারবাড়ীতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের কেআইবি কনভেনশান হলে নারী উদ্যোক্তাদের নিয়ে আয়োজিত এক আন্ত:র্জাতিক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন। দেশে প্রথমবারের মতো গ্রোভি হেয়ার বিউটি এন্ড স্পা এর উদ্যোগে ও রোকেয়া সুলতানা টিকলির পরিচালনায়। অনুষ্ঠিত কর্মশালায় অডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মেয়র এসব কথা বলেন। দেশ বিদেশের শতাধিক নারী উদ্যোক্তা এ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

মশিউর রহমান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আর্ন্তজাতিক এ কর্মশালায় ভারতের বিখ্যাত কসমেটলজিস্ট ও সেলিব্রেটি হেয়ার স্টাইলিস্ট এক্স ল’রিয়েল এক্সপার্ট ড: রাজ চৈৗধুরি প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া ব্রিটেন, ভারত, নেপাল ও আমেরিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত হেয়ার স্টাইলিস্টগণ প্রশিক্ষণ প্রদান করেন।

কর্মশালায় কিভাবে নারীরা সহজে ব্যবসা পরিচালণা করবেন, কর্মচারী নয় কিভাবে উদ্যোক্তা হবেন, ব্যবসা পরিচালণায় কি কি বাধার সম্মুখিন হতে হয় বা কিভাবে তা মোকাবেলাসহ বিউটি হেয়ারের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে কিভাবে একজন নারী প্রতিমাসে সর্বোচ্চ লাক টাকারও বেশি আয় করতে পারেন, তার পদ্ধতি জানাতে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

মেয়র আতিকুল বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নারী আর দেশও চালাচ্ছেন নারীরা। তাই আমাদের সমাজে নারীরা এখন আর অবহেলিত নয়। এক সময় নারীরা স্বামী সন্তান বা ছেলে কিংবা পুরুষের উপর ভবরসা করেই জীবন পরিচালনা করতো। বর্তমানে নারীরা আর বসে নেই। তাই আমরা চাই ডিএনসিসি এলাকায় ও রাজধানীতে বসবাসকারী নারীদেরকে নিয়ে অতি দ্রুত একটি নারী উদ্যোক্তা সম্মেলন করতে। এর মাধ্যমে নারীদেরকে উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদান করে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করে আয় বৃদ্ধির মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে তাদের অবদান বাড়াতে। মেয়র অনুষ্ঠানে আগত নারীদেরকে সহজে ট্রেড লাইসেন্স প্রদান করতে সর্বোচ্চ সহায়তারও আম্বাস দেন। অনুষ্ঠান শেষে সণদ বিতরণ করা হয়।

তিনি বলেন, নারী উদ্যোক্তারা নিজে আয় করে পরিবার ও সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। সংসারের অন্যতম আয়রে উৎসে পরিণত করছেন। তাই তাদেরকে নির্বিঘ্নে ব্যবসা পরিচালনা করতে সহজে ঋণের ব্যবস্থা করা,অনলঅইনে ব্যবসা পরিচালনাকারী নারীদেরকে সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা করায় ডিএনসিসি কাজ করবে। সহজে ও স্বাচ্ছ্যন্দে ব্যবসা পরিচালণার জন্য নারীদেরকে সিটি কর্পোরেশনের যে কোন প্রকার সাহায্য পেতে মেয়রের সাথে যোগাযোগ করার আহ্বান জানান।

মেয়র বলেন, যে কোন নারী ব্যবসা করতে যে কোন প্রকার সাহায্যের জন্য ডিএনসিসির পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্ঠা করা হবে। এমনকি যে কোন সমস্যা ও ব্যবসায় সহযোগীতার জন্য লিখিত আবেদন করলে তাতে সর্বোচ্চ সহযোগীতারও আম্বাস দেন মেয়র।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত