প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পলাশবাড়ীতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সময়ের আগেই ছুটি দিয়ে চম্পট শিক্ষকগণ

পলাশবাড়ী (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার কিশোরগাড়ী ক্লাষ্টারভূক্ত বেশিরভাগ বিদ্যালয়ই দুপুর দু’টার মধ্যেই ছুটি দিয়ে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ চম্পট।

সোমবার সরেজিমন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার কিশোরগাড়ী ক্লাস্টারভূক্ত কাশিয়াবাড়ী ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সগুনা ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পশ্চিম মির্জাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ শিক্ষার্থীদের ছুটি দিয়ে বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে বাড়ীতে চলে যায়।

কাশিয়াবাড়ী ২নং সপ্রবি সহকারি শিক্ষিক এসতেহান বেগম বলেন, প্রচন্ড গরম তাই বিদ্যালয় বন্ধ করে বাড়ীতে যাচ্ছি। প্রধান শিক্ষকের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, উপজেলা শিক্ষা অফিসে কাজে গিয়েছেন। পরবর্তীতে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককের সাথে দেখা হলে তিনি বলেন, আমি সহকারি শিক্ষকদের বিকেল সোয়া ৪টা পর্যন্ত বিদ্যালয় খোলা রাখতে বলেছি। কিন্তু বিদ্যালয় বন্ধের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে বিদ্যালয় বন্ধের বিষয়টি তিনি জানতে পেরেছেন।

বিদ্যালয়টিতে ৪ জন শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন। পশ্চিম মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও সময়ের আগেই বন্ধ করে প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকরা বাড়ীতে গিয়েছেন। পরে প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয় মাঠে এসে বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা বলেছে তাই বিদ্যালয় বন্ধ করে ওই অনুষ্ঠানে যাচ্ছি। একই রকম সগুনা ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় বিদ্যালয় বন্ধ। কোন শিক্ষক-শিক্ষার্থীর দেখা না মিললেও একজন স্থানীয় অভিভাবকের দেখা পাওয়া যায়। তিনি জানান, বিদ্যালয়টি প্রায়ই সময়ের আগেই বন্ধ করে শিক্ষকরা চলে যান। এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল্যাহিশ শাফীকে বিষয়টি অবগত করলে তিনি বলেন পত্রিকায় লেখেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত