প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অবৈধ মধুমতি মডেল টাউনে উঠছে নতুন বাড়ি, রায়ের দোহাই দিয়ে ‘ঘুরে’ যাচ্ছে পুলিশ

ফাতেমা ইসলাম : মধুমতি মডেল টাউনকে অবৈধ ঘোষণা করে প্রকল্প এলাকা আবার খনন করে জলাধারে ফেরানোর রায় দিয়েছিলো সর্বোচ্চ আদালত। সে নির্দেশনা মানা তো দূরের কথা, সেখানে জমি ভরাট করে নতুন ঘরবাড়ি তুলছে প্লট মালিকরা। এঅবস্থায় যে কোনো মূল্যে নির্দিষ্ট সময়ে রায় কার্যকর করে দৃষ্টান্ত স্থাপনের দাবি পরিবেশবিদদের। ইন্ডেপেন্ডেন্ট টিভি

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশেই আবাসন প্রকল্প মধুমতি মডেল টাউন। রাজউকের অনুমোদন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই জলাধার ভরাট করে প্লট বিক্রি করে নির্মাণ প্রতিষ্ঠান মেট্রো মেকার্স। ২০০৪ সালে এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করে বেলা। পক্ষে-বিপক্ষে একাধিক মামলার রায় নিষ্পত্তি করে ২৫ এপ্রিল প্রকল্প অবৈধ ঘোষণা করে আপিল বিভাগ। তারপরও বন্ধ হয়নি কাজ।

রায়ে বলা হয়েছিল, নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ৬ মাসের মধ্যে নিজ খরচে খনন করে জলাভ‚মিতে ফেরাবে প্রকল্প এলাকা। তবে সরেজিমনের চিত্র পুরোপুরি উল্টো চিত্র। তৈরি হচ্ছে নতুন বাড়ি-ঘর। চলছে ভরাট। আর রায়ের দোহাই দিয়ে মাঝে-মধ্যেই কিছু পুলিশ সদস্য এসে আদায় করছে অর্থ।

বাপার যুগ্ম সম্পাদক বলেন, এ অবস্থায় আদালতের রায় কার্যকর সহজ হবে বলে মনে করছি। মেট্রো মেকার্সের প্রতারণার শিকার প্লট মালিকরা বলেছেন, রায়ের বিরুদ্ধে তাদের বক্তব্য নেই, তবে দিতে হবে ক্ষতিপূরণ। এদিকে বেধে দেয়া সময়ে মেট্রো মেকার্স নির্দেশনা না মানলে তাদের কাছ থেকে খরচ নিয়ে রাজউককে কাজ শুরুর আদেশ দিয়েছে আপিল বিভাগ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত