প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মোহাম্মদপুরে জঙ্গি আস্তানায় দুই থেকে তিনজন নিহত হয়েছে বলে ধারণা করছে র‌্যাব

ইসমাঈল ইমু ও হ্যাপি আক্তার : জঙ্গিবাদ সারা বিশ্বব্যাপি মানুষকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে এবং অপদস্ত করছে। তাদেরকে সামনে আসার আহ্বান জানিয়ে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেন, কেউ যদি কখনো কোথাও জঙ্গিবাদের দিকে যায় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে র‌্যাবকে জনাবেন। কারণ জঙ্গিবাদ দেশ, জাতী ও ইসলামের দুষমন।  আজ সোমবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলার মেট্রো হাউজিংয়ে একটি বাড়িতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহ অভিযান শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গোয়েন্দা তথ্যেন ভিত্তিতে বসিলাতে র‌্যাব অভিযান চালায়। তবে এই অভিযানে কোন জঙ্গি সংগঠনের আস্তানা ছিলো তা পরবর্তীতে জানানো হবে। অভিযানে দুই থেকে তিনজন নিহত হয়েছে বলে ধারণা করছে র‌্যাব।

যে বাড়িটিতে অভিযান চালানো হয়েছে তার অবস্থা বিধ্বস্ত। আর যারা সেই বাড়িতে যে মৃত দেহগুলো ছিলো তাদের অবস্থা ছিন্ন ভিন্ন। সেখানে কতগুলো মৃত দেহ রয়েছে তা পরীক্ষা করে জানা যাবে। অভিযান এখনো পূর্ণাঙ্গভাবে শেষ হয়নি। র‌্যাবের মহাপরিচালক বলেন, আমাদের পর্যাপ্ত প্রচেষ্টা হলো, যাতে করে কেউ বিস্ফোরক সংগ্রহ, মজুদ ও তা দিয়ে যেন কেউ প্রশিক্ষণ নিতে না পারে। এই সমস্ত প্রক্রিয়াকে নজরদারি করা হয়। অনেক কিছুই ধ্বংস করে দেয়া হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভোর সাড়ে ৩টার দিকে ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে ওই টিনশেড ওই বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। এরপর অভিযানে নামে র‍্যাব। শুরুতেই ওই বাসার একটি কক্ষ থেকে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এরপর ভেতর থেকে র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে।

সোয়া ৯টার দিকে র‌্যাবের বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ও স্পেশাল ফোর্সের সদস্যরা বাড়িটির ভেতরে ঢোকেন। এরপর বাড়িটিতে কয়েক দফা গুলির শব্দ শোনা যায়। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে র‌্যাবের পক্ষ থেকে ড্রোন ওড়াতে দেখা যায় ওই এলাকায়।

তখন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জানান, আস্তানার ভেতরে কেউ জীবিত নেই। অবিস্ফোরিত অবস্থায় ইমপ্রোভাইজ এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। সেগুলো নিষ্ক্রিয় করার কাজ চলছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত