প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভাড়া নেওয়ার সময় কোনো নাম-ঠিকানা ব্যবহার করেনি সন্দেহভাজন দুই জঙ্গি

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ঘিরে রাখা টিনশেড বাড়িটিতে সন্দেহভাজন দুই জঙ্গি গত এক/দেড় মাস ধরে অবস্থান করছিল। তবে বাসা ভাড়া নেওয়ার সময় কোনো নাম-ঠিকানা ব্যবহার করেনি তারা। খবর বাংলা নিউজ

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার (২৯ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৩টার দিকে ওই বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। পরে আশে-পাশের বাসিন্দাদের নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নেওয়া হয়। এরপরই বাড়িটি ঘিরে অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

বাহিনীটির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাসার কেয়ারটেকার সোহাগ, তার স্ত্রী মৌসুমী ও বাসার কাছের একটি মসজিদের ইমাম ইউসুফকে আটক করা হয়েছে। তবে বাসায় অবস্থান নেওয়া জঙ্গিদের বিষয়ে স্পষ্ট কোনো ধারণা পাওয়া যায়নি। বাসার কেয়ারটেকার সোহাগ জানান, সন্দেহভাজন দুই যুবক এক/দেড় মাস আগে বাসাটি ভাড়া নেয়। তবে বাসা ভাড়া নেওয়ার সময় তারা কোনো নাম-ঠিকানা জমা দেয়নি।

ওই বাসার আরেক বাসিন্দা জুনায়েদ জানান, বাসাটিতে চারটি রুমে চার পরিবার থাকেন, তার একটিতে পরিবারসহ ভাড়া থাকেন তিনি। বাসার কেয়ারটেকার সোহাগ ডিশের ব্যবসা করেন। তবে সন্দেহভাজন জঙ্গিদের বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা নেই তার। তিনি বলেন, ‘ওই রুমে কে ছিলেন, আমি জানতাম না। তাদের সঙ্গে কখনো দেখা হয়নি।’ র‌্যাব জানায়, বাসার পাশেই অল্প কিছুদিন আগে একটি মসজিদ করা হয়। কিন্তু মসজিদের বিষয়ে এলাকাবাসী জানতেন না। সম্প্রতি সেখানে মাদ্রাসা করার পরিকল্পনা রয়েছে।

এদিকে, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব অভিযানে গেলে শুরুতেই ওই বাসার একটি কক্ষ থেকে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এরপর ভেতর থেকে র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। সকালে পৌনে ৫টার দিকে ওই বাসায় বড় ধরনের একটি বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। দুই দফায় বিস্ফোরণ হওয়ায় ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে বাসাটি ঘিরে রেখেছে র‍্যাব। র‍্যাবের স্পেশাল ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ও ডগ স্কোয়াড পৌঁছালে পরবর্তী কার্যক্রম শুরু করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত