প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাসেলের রানের পাহাড়ের কাছে কাজে আসেনি পান্ডিয়ার ঝড়ো ইনিংস

স্পোর্টস ডেস্ক: চলমান আইপিএলে টানা ছয় হারে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা কলকাতা নাইট নাইডার্সকে জয়ের ধারায় ফেরাতে নিজের সামর্থ্যের দেড়শ ভাগ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ঘরের মাঠের বাঁচা মরার ম্যাচে ঠিক তাই করলেন এই জ্যামাইকান অলরাউন্ডার। তার অলরাউন্ড পারফরমেন্সে টানা ছয় হারের পর জয়ের দেখা পেল দীনেশ কার্ত্তিকের দল। রাসেলের ঝড়ো ইনিংসের কাছে হার মেনেছে মুম্বাইয়ের হার্দিক পান্ডিয়ার ৩৪ বলে ৯১ রানের ইনিংস। কলকাতার কাছে ১৬ রানে হারতে হয়েছে রোহিত শর্মার দলকে। কলকাতার এই জয়ে প্লে অপের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে।

ঘরের মাঠে এদিনে টস ভাগ্য সঙ্গে ছিল না কলকাতার। ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পেয়ে শুরু থেকেই আগ্রাসী ভঙ্গিমায় খেলে দলটি। ৯৬ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন ওপেনার শুবমান গিল এবং ক্রিস লিন। ৫৪ রান করে ফিরে যান লিন। এরপরে শুরু হয় রাসেল তান্ডব। গিলের সঙ্গে ৬২ রানের জুটি গড়েন তিনি। ৭৬ রান করা শুবমানকে এদিনে থামিয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া। শেষ পর্যন্ত ছয়টি চার ও আটটি ছক্কায় ৪০ বলে অপরাজিত ৮০ রান করেন রাসেল। আর ১৫ রান করে তার সঙ্গে অপরাজিত থাকেন কার্তিক।

নির্ধারিত ২০ ওভারে কলকাতা পেয়ে যায় দুই উইকেটে ২৩২ রানের পাহাড়সম সংগ্রহ। এই লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ফিরে যান কুইন্টন ডি কক (০)। টিকতে পারেননি রোহিত শর্মাও (১২)। এরপরে এভিন লুইস (১৫) ও সুরিয়াকুমার যাদবকে (২৬) ফেরান রাসেল। ৫৮ রানে চার উইকেট হারানো মুম্বাইকে পথ দেখান পান্ডিয়া। পোলার্ডকে সাথে নিয়ে গড়েন ৬৩ রানের জুটি। পোলার্ড অবশ্য ২০ রানেই ফিরে যান। এরপরে সহোদর ক্রুনাল পান্ডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ঝড়ো গতিতে রান তুলতে থাকেন হার্দিক। হ্যারি গার্নের বলে রাসেলের হাতে তালুবন্দী হওয়ার আগে হার্দিক করেন ছয়টি চার ও নয়টি ছক্কায় ৩৪ বলে ৯১ রান। তখনও অবশ্য পরাজয়ের প্রহর গুনছিল মুম্বাই। শেষমেশ ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ১৯৮ রানে থামে দলটি।

এই হারে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার তৃতীয়তেই থেকে গেল মুম্বাই, এখনও প্লে অফ নিশ্চিত হয়নি তাদের। ১২ ম্যাচে পাঁচ জয় নিয়ে সাত নম্বর থেকে কলকাতা উঠে এলো পয়েন্ট তালিকার পাঁচে, প্লে অফের স্বপ্ন অক্ষুন্ন রাখল রাসেলের দল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত