প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার মাশরাফিকে আমরা উৎসাহিত করতে পারি না কেন?

ফরহাদ টিটু : মাশরাফি তার এলাকার হাসপাতালে আকস্মিক ঢুঁ মেরেছিলেন ডাক্তার, সুপারভাইজারদের দুর্নীতি ধরতে । কাজটা একদমই খারাপ করেননি তিনি। ম্যাশের এই র‌্যাব স্টাইল অ্যাক্ট দেখে যতো মানুষ খুশি তারচেয়ে বেশি মানুষ খুশি নয় । যারা খুশি না তারা বলতে চাইছেন এটা লোক দেখানো অথবা ভিডিও প্রচার করাই ছিলো মাশরাফির উদ্দেশ্য। এটা কেমন কথা!

যে লোক সারা দুনিয়ার সামনে ক্রিকেট খেলে হাততালি আর ভালোবাসা নিতে নিতে পুরান হয়ে গেছে সে কেন কোথাকার কোন নড়াইলের এক অখ্যাত হাসপাতালে নিজের ভিডিও ছেড়ে জনপ্রিয়তা কামাতে চাইবে! অবশ্যই সমালোচনার ঊর্ধে নন মাশরাফি । তার এমপি হয়ে আসার পদ্ধতি আর ইতিহাস নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে প্রশ্নও উঠতে পারে… তবে যে কাজটার জন্য(হাসপাতাল ভ্রমণ) এখন নেগেটিভ মন্তব্য হচ্ছে তা কি ঠিক ?

আমরাই সারাদিন দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার অথচ একটা লোক দুর্নীতির পেছনে লাগছে দেখে তাকে উৎসাহিত করতে পারি না কেন? আরেকটা কথা, সারা দেশের সমস্যা ঠিক করার দায়িত্ব মাশরাফির নয়। এমপি হিসেবে তার এলাকা নড়াইল। তিনি নড়াইলের হাসপাতালেই ঢুকবেন, ঢাকা মেডিকেলে নয়!

নির্বাচিত মন্তব্য : হাসমত এলাহী ফুয়াদÑ ভাইয়া, উনি নিজের এলাকার কাজ, সাংসদ বিষয়ক কাজ বাদ দিয়ে বিনোদনের মতো ব্যাপার নিয়ে দেশে ও দেশের বাহিরে ব্যস্ত। সংসদ সদস্য তো আলংকারিক কোনো পদ নয়, তার উপর দুর্নীতি করে এই পদে আসীন হয়েছেন, একসাথে দুই প্রতিষ্ঠান থেকে বেতন হচ্ছে, তার উপর উনি যেটা করেছেন প্রাতিষ্ঠানিক কাজ নয়, রীতিমতো মাস্তানি। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত