প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পতনের ধারা থেকে বের হতে পারছে না দেশের শেয়ারবাজার

রমজান আলী : আগের সপ্তাহের মতো চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি সূচকের পতন হয়েছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ২৭ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ২৩৮ পয়েন্টে নেমে গেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২০৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই-৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮৫৫ পয়েন্টে নেমে গেছে।

মূল্যসূচকে এই পতনের ফলে এদিন ডিএসইতে যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে তার দ্বিগুণেরও বেশি। দিনভর বাজারটিতে লেনদেনে অংশ নেয়া ৯৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২০৮টির এবং দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির।

মূল্য সূচক ও সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের দরপতনের পাশাপাশি ডিএসইতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। টাকার অঙ্কে দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৪৪ কোটি ২৫ লাখ টাকার। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩৮২ কোটি ৯৭ লাখ টাকার। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৩৮ কোটি ৭২ লাখ টাকা।

বাজারটিতে টাকার পরিমাণে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল পলিমারের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৬ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৪ কোটি ৫০ লাখ টাকার লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে ফরচুন সুজ এবং ১৩ কোটি ৪০ লাখ টাকা লেনদেনে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে মুন্নু সিরামিক।

এ ছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে, ন্যাশনাল টিউবস, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস, এস্কয়ার নেট কম্পোজিট, পাওয়ার গ্রীড, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যাল এবং জিনেক্স ইনফোসিস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৫৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৭১০ পয়েন্টে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৪ কোটি ৩৬ লাখ টাকার। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দাম বেড়েছে ৮৪টির, কমেছে ১২৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত