প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাগল থেকে যদি ভালো কিছু হয় , তবে পাগলই ভালো

শাহীন কামাল

 

সুইডেনের পরিবেশবাদী সংগঠন ‘রি.পাবলিক’ মিজানুর রহমানকে ‘জলবায়ু  যোদ্ধা’ খেতাব দিয়েছেন, আর তাকেই কিনা ওয়াসার এমডি পাগল বলেছেন। জনগণের অধিকার আদায়ে নিরলস কাজ করে যাওয়া মানুষ পাগলই বটে! যারা নিজের খেয়ে বনের মোষ তাড়ায় তারা পাগল বৈ অন্য কি? জুরাইনের মিজানুর রহমান এই স্বার্থপর সমাজে পরোপকারী নেতৃত্বের জ্বলন্ত দৃষ্টান্ত। সুন্দরবন রক্ষা আন্দোলন, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে লাঞ্ছনা আর কারাভোগ করা তো পাগলেরই কাজ। দুই দশক কাল বই মেলার নামে নিজ উদ্যোগে বাচ্চাদের মধ্যে পাঠাভ্যাস গড়ে তোলার বিরামহীন কর্ম পাগলামীর চরম দৃষ্টান্ত।

মিজানুর রহমানের প্রতিবাদের ভাষাও পাগলাটে। ভাংচুর, অবরোধ, জ্বালাও পোড়াও এর পরিবর্তে তিনি বেছে নিলেন শরবত থেরাপি। ওয়াসার এমডির জন্য সুপেয় পানির শরবত। যেন জামাই আদর আর কী! জামাই শ্বশুরবাড়ি গেলে যেভাবে সম্মানিত আর আপ্যায়িত করা হয়, অনেকটা সেরকম। তাতেই কিনা এমডি মহোদয় বিরক্ত হলেন! এমন অভিনব আর শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ দেখেই কী এমডি মিজানুর রহমানকে পাগল বলেছেন! এমডি মহোদয় কি ধরনের শরবত খাবেন, তা তার একান্তই ব্যক্তিগত পছন্দ। তাই বলে আপ্যায়নকারীকে পাগল বলা! তাছাড়া ভদ্রলোক ডায়াবেটিসেও আক্রান্ত হতে পারেন! শুনেছি, ডায়বেটিস রোগীরা মাঝেমধ্যে মানসিক খেই হারিয়ে ফেলেন। একটা মজার গল্প মনে পড়ছে, গল্পটা যদিও বেশ পুরনো। সরকার প্রধান গেছেন পাগলের চিকিৎসা কেন্দ্রে। এক পাগলের সাথে কথা বললেন তিনি। পাগল তাকে ডাক্তারদের দেখিয়ে বলে, এখানে এই পাগলদের আমরা চিকিৎসা করছি। মোদ্দাকথা, মিজানুর রহমানের মতো পাগল এ সমাজে অনেক দরকার। নিজের প্রয়োজন আর চাহিদাকে দমিয়ে অপরের জন্য কাজ করা মানুষজন মাঝেমধ্যে পাগল খ্যাতি লাভ করেন। কিন্তু তাদের এই পাগলামিতে উপকৃত হয় হাজারো মানুষ। যতো বেশি এমন পাগল বাড়বে সমাজে, ততোই এ সমাজ মানবিক হবে। পাগল থেকে যদি ভাল কিছু হয়,তবে পাগলই ভালো।

লেখক : শিক্ষক, সাংবাদিক

 

 

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত